রাজবাড়ী ও সিরাজগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুইজন নিহত

সারাবাংলা(আজকের নারায়নগঞ্জ):   রাজবাড়ী ও সিরাজগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুইজন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে একজন পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য ও অন্যজন ডাকাত সদস্য বলে পুলিশ দাবি করেছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে দুইটি গান, ১৪টি কার্তুজ, একটি কুড়াল, একটি হাসুয়া ও তিন রাউন্ড পিস্তলের গুলি একটি ওয়ান শুটার গান, একটি একনলা বন্দুক ও ছয় রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রাজবাড়ী: জেলার পাংশা উপজেলার হাবাসপুরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য লালন হালদার নিহত হয়েছেন। এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটার গান, একটি একনলা বন্দুক ও ছয় রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ।
শুক্রবার ভোরে হাবাসপুর এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। লালন হালদার পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত জীতেন হালদারের ছেলে।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (পাংশা সার্কেল) মো. ফজলুর রহমান জানান, রাতে চরমপন্থি নেতা লালন পাংশা উপজেলার হাবাসপুর এলাকায় পদ্মা নদীর তীরে গোপন বৈঠক করছিল। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। এসময় চরমপন্থি দলের সদস্যরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি করে। জবাবে পুলিশও পাল্টা গুলি করে। এতে লালন গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে পাংশা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
সিরাজগঞ্জ: জেলার উল্লাপাড়ায় র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ হযরত আলী (৪২) নামে এক ডাকাত নিহত হয়েছেন। এসময় ঘটনাস্থল থেকে দুইটি গান, ১৪টি কার্তুজ, একটি কুড়াল, একটি হাসুয়া ও তিন রাউন্ড পিস্তলের গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উল্লাপাড়া উপজেলার পাইকপাড়ার শ্মশানঘাট এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।
র‌্যাব-১২ এর স্পেশাল কোম্পানি সিরাজগঞ্জ ক্যাম্পের কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সাকিবুল ইসলাম খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।