বন্দুকযুদ্ধের’ নামে আলমগীর বাদশাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার অভিযোগ বিএনপির

রাজনৈতিক ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ):  জমি সক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ‘করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক ছাত্র নেতা মাসুকুল ইসলাম রাজীব।

বৃহস্পতিবার (২৬ জুলাই) জেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের উদ্যোগে প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি ওই দাবি করেন। সোনারগাঁ থানা জাতীয়তাবাদী তরুন দলের সভাপতি আলমগীর বাদশা কথিত ‘বন্দুকযৃদ্ধে’ নিহত তথা হত্যার প্রতিবাদে এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রাজীব দৃঢ়তার সাথেই বলেন, গত ১৫ বছরের মধ্যে আলমগীরের বিরুদ্ধে যদি কোনো পত্রিকায় একটি লাইনও লেখা হয়ে থাকে, তাহলে যা সাজা হবে মাথা পেতে নেবো। সম্পূর্ন ষড়যন্ত্র ভাবে জায়গা সম্পত্তি ঝামেলার কারণে একজন ব্যবসায়ী প্রশাসনকে মিথ্যে তথ্য দিয়ে তাকে ক্রস ফায়ারের নামে হত্যা করিয়েছে। আমরা এ হত্যার বিচার চাই।

প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় যুবদলের সদস্য সাদেকুর রহমান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারন সম্পাদক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান, মহানগর ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম সজল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারন সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন রানা, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি সাহেদ আহমেদ প্রমূখ।

রাজীব তাঁর বক্তব্যে আরও বলেন, র‌্যাবের ক্রস ফায়ারে নিহত সোনারগাঁও থানা জাতীয়তাবাদী তরুন দলের সভাপতি আলমগীর বাদশা বিএনপির জন্য পাগল ছিলেন। যেখানেই বিএনপির কোনো কর্মসূচি হয়েছে, সেখানেই তিনি বিদ্যুৎ গতিতে ছুটে গিয়েছেন। সাধারন মানুষ থেকে শুরু করে সকল নেতাকর্মীদের সাথে তার খুব সুসম্পর্ক ছিলো।