২৪ ঘণ্টায় পদ্মার গর্ভে বিলীন ৩০ বসতভিটা

সারাবাংলা(আজকের নারায়নগঞ্জ):  শরীয়তপুরের পদ্মার পানি বৃদ্ধি ও ভাঙন অব্যাহত থাকায় দুর্ভোগ বাড়ছে নদী তীরবর্তী মানুষের।

দুই দিন ভাঙনের তীব্রতা কিছুটা কম থাকলে সোমবার রাত থেকে আবার প্রবল স্রোতে একের পর এক ভাঙনের কবলে পড়ছে নড়িয়া ও জাজিরা উপজেলা। গত ২৪ ঘণ্টায় নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে কমপক্ষে ৩০টি বসতভিটা। সহায় সম্বল ও ভূমি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে গেছে অন্তত ১৫০০ পরিবার। ভাঙনের হুমকিতে রয়েছে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, কেদারপুর ও ঘরিষার ইউনিয়ন পরিষদ ভবন ও ভুমি অফিসসহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা।

এছাড়া প্রতিদিনই নদী গর্ভে বিলীন হচ্ছে নতুন নতুন এলাকা। এ অবস্থায় ভাঙন কবলিতদের পাশাপাশি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা সরকারি ত্রাণ সহায়তার দাবি জানিয়েছেন।

নড়িয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা ইয়াসমিন বলেন, ‘ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর তালিকা আমরা থেরি করেছি এবং সংশ্লিষ্ট দফতরে পাঠিয়েছি। যাতে করে সরকারি বিধি মোতাবেক যেসব ত্রাণ সহায়তা আছে, সেগুলো আমরা ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে বিতরণ করতে পারি।’