এবার হবে ফাইনাল খেলা,এ খেলায় আমরাই জিতবো- শামীম ওসমান

 ফতুল্লা(আজকের নারায়নগঞ্জ):  নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ এ কে এম শামীম ওসমান বলেছেন, টাকা দিয়ে আমি নির্বাচন করবো না। আবার আগামী নির্বাচন আমি করবো কিনা তাও জানি না। যদি নির্বাচন করি তাহলে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের মানুষের কাছ থেকে দোয়া নিয়েই আমি নির্বাচনে নামবো। আর এইবার হবে ফাইনাল খেলা। এ খেলা সত্য এবং মিথ্যার খেলা। এই খেলায় আমরাই জিতবো।

মঙ্গলবার (২৪ জুলাই) বিকেলে ফতুল্লার কাশিপুর ইউনিয়নের হাজী উজির আলী বিদ্যালয় মাঠে ৭,৮ ও ৯নং ওয়ার্ড কেন্দ্র কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন।

শামীম ওসমান আরো বলেন, ইতিহাস স্বাক্ষী দলের নেতৃস্থানীয়রাই বিভিন্ন সময় বেঈমানী করেছে। কিন্তু তৃণমূল কখনোই বেঈমানী করে নাই। তৃণমূল অর্ধাহারে,অনাহারে থাকে। অবহেলিত থেকেও বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করেন। আমার ঐ সমস্ত তৃণমূলকেই প্রয়োজন।

কাশিপুর ইউনিয়ন আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও প্যানেল চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আইয়ুব আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে,ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও কাশিপুর ইউপি’র চেয়ারম্যান এম সাইফুল্লাহ বাদল, ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বক্তাবলী ইউপি’র চেয়ারম্যান এম শওকত আলী, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি চন্দনশীল, কাশিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন, কাশিপুর ইউনিয়ন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাত্তার,কাশিপুর ইউনিয়ন ৭ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি হারুন মিয়া,আ’লীগ নেতা আনোয়ার, ফতুল্লা থানা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক এমএ মান্নান,কাশিপুর ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি আবুল কালাম,কাশিপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আনিছুর রহমান শ্যামল, সাধারন সম্পাদক শামীম আহম্মেদ প্রমুখসহ বিভিন্ন ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভা শেষে কাশিপুর ইউনিয়ন ৭,৮ ও ৯ নংনং ওয়ার্ডের কেন্দ্র কমিটির নেতৃবৃন্দের নথি সাংসদ শামীম ওসমানের কাছে হস্তান্তর করেন থানা ও ইউনিয়ন আ’লীগ নেতৃবৃন্দ।

এমপি শামীম ওসমান বলেন, আগামী নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে শেখ হাসিনাকে পুনরায় নির্বাচিত করতে হবে। শেখ হাসিনাকে যদি ক্ষমতায় আনতে না পারি তাহলে দেশের সমস্ত উন্নয়ন মুখ থুবড়ে পড়বে। দেশে জঙ্গীদের উত্থান ঘটবে।

শেখ হাসিনা বিশ্বের মধ্যে উন্নয়নের একটি রোল মডেল উল্লেখ করে শামীম ওসমান আরো বলেন, বিএনপি জামাত জোট শেখ হাসিনাকে ২১বার হত্যার চেষ্টা করেছে। তার উপর গ্রেনেডে হামলা চালিয়েছে। কিন্তু আল্লাহর রহমতে শেখ হাসিনা বেঁচে আছে। আল্লাহ শেখ হাসিনাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্যই। আমাদের এ দেশকে এখন আর কারো পায়ের উপর ভর করে দাঁড়াতে হয় না।

শামীম ওসমান বলেন, এক রাতে পরিবারের দুইজন সদস্য বাদে সবাইকে হত্যা করা হয়েছে। তারা শুধু একটি পরিবারকে হত্যা করেনি। তারা হত্যা করেছে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে। তারা হত্যা করেছে এদেশের অভিভাবককে। তারা হত্যা করেছে বাংলার সমৃদ্ধকে। তবে সেই বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনাকে আল্লাহ বাঁচিয়ে রেখেছেন এই দেশকে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর জন্যই।

শেখ হাসিনা বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু মরে নাই,বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতেই শেখ হাসিনা বেঁচে আছেন এবং উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। যার জীবন্ত প্রমান পদ্মা সেতু নির্মাণসহ জিডিপি ৭.৫-এ গিয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশ্ব আজ বাংলাদেশের সাথে হিসেব করে কথা বলতে হয়। কারণ আমাদের জিডিপি এখন ভারতের চাইতেও বেশি।

অল্প সময়ের মধ্যে আমরা চায়নাকেও জিডিপিতে পেছনে ফেলতে পারব। যখন পদ্মা সেতু করার জন্য বিশ্ব ব্যাংক সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিল,তখন ড. ইউনুস সাহেব তার বান্ধবী হিলারী ক্লিনটনকে দিয়ে বিশ্ব ব্যাংকের ঋণ বন্ধ করে দিয়েছিল। কেন? ডক্টর ইউনুসরা বিশ্ব ব্যাংককে বুঝিয়েছিল পদ্মা সেতুতে দূর্নিতী হবে।

তাদের কথামতো বিশ্ব ব্যাংকও ঋণও দেয়া বন্ধ করে দেয়। তখন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বলেছিল,কারো থেকে হাত পেতে নয়,এই দেশের টাকা-ই হবে পদ্মা সেতু। আর তিনি তথাকথিত ডক্টরদের দেখিয়ে দিয়েছেন এরই নাম বাপের বেটি শেখ হাসিনা। বাংলাদেশ আজকে উজ্জীবিত বাঘ।