জয়নাল আবেদীনকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসাবে ভাবতে পারেন’

রাজনৈতিক ডেস্ক( আজকের নারায়নগঞ্জ)  জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান সরদার শাহজাহান বলেছেন, বর্তমানে নারায়ণগঞ্জে জয়নাল আবেদিনের নামের সাথে যে নাম গুলো উচ্চারণ হয় সেগুলো আমরা প্রত্যাহারের চেষ্টা করবো। তারা কেন্দ্রে গিয়ে ধর্ণা দিতে পারবে কিন্তু আমরা সঠিক ব্যক্তিকে নিয়েই এগিয়ে যাবো।

তিনি বলেন,  এখানে আসার আগেও চেয়ারম্যানকে জানিয়ে এসেছি নারায়ণগঞ্জে জয়নাল আবেদিনের সাংগঠনিক কার্যক্রমে যাচ্ছি। আপনারা কেউ উৎকন্ঠায় থাকার কোন কারণ নেই, নির্বাচনে অবশ্যই জয়নাল আবেদিনকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে আপনারা ভাবতে পারেন।

শনিবার (২১ জুলাই) সন্ধ্যায় টানবাজার এলাকার আল জয়নাল প্লাজায় বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটি কর্তৃক জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জয়নাল আবেদিনকে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি মো. গোলাম কাদিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংবিধান বিশেষজ্ঞ অ্যাডভোকেট মুহাম্মাদ সিরাজুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান সরদার শাহজাহান, জাতীয় ইসলামী মহাজোট সম্মিলিত জাতীয় জোট এর মহাসচিব আবুল হাছানাত, বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশন বাজাফে ১৭ এর কার্যকরী সভাপতি মাষ্টার মোখলেছুর রহমান।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংবিধান বিশেষজ্ঞ অ্যাডভোকেট মুহাম্মাদ সিরাজুল ইসলাম বলেন, জাতীয় পার্টিতে কোন দুর্নীতিবাজ, সন্ত্রাসের স্থান নেই। আমরা রাজনীতিমুক্ত শিক্ষাঙ্গণ চেয়েছিলাম। আমরা ক্ষমতায় থাকাকালীন কোন হানা হানির প্রশ্রয় দেই নি। আমরা রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় বিশ্বাস করি না।

কিন্তু বিএনপি আওয়ামীলীগ এগুলোর আমদানি করেছে। এখন থেকে জাতীয় পার্টি মানে শুধু জাতীয় পার্টি। জাতীয় পার্টি কখনোই আওয়ামী জাতীয় পার্টি বা জাতীয়তাবাদী জাতীয় পার্টি হতে পারে না।

নারায়ণগঞ্জে জয়নাল আবেদিন জাতীয় পার্টিকে খুব সুন্দরভাবে শৃঙ্খলায় নিয়ে আসছে। আমাদের চেয়ারম্যান সবসময়ই সাংগঠনিকভাবে দক্ষ লোকদের পছন্দ করেন। জয়নাল আবেদিনের বিষয়টিও তিনি নিশ্চয়ই মাথায় রাখবেন।

জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জয়নাল আবেদিন বলেন, আমি নারায়ণগঞ্জ জাতীয়পার্টিকে উজ্জীবিত করতে সাংগঠনিক কাজ করে যাচ্ছি। চেয়ারম্যান যদি আমাকে নমিনেশন দেয় তো আমি অবশ্যই নির্বাচন করবো।

জাতীয় ইসলামী মহাজোট সম্মিলিত জাতীয় জোট এর মহাসচিব আবুল হাছানাত বলেন, সমাজের জন্য সবাই করতে পারে না, যেভাবে জয়নাল আবেদিন করছেন। নির্বাচনে তার মতো যোগ্য প্রার্থীই দরকার।

বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশন বাজাফে ১৭ এর কার্যকরী সভাপতি মাষ্টার মোখলেছুর রহমান বলেন, শ্রমিক আন্দোলন করা মানেই শ্রমিকের পক্ষে তাদের হক আদায়ের কথা বলা। কিন্তু যোগ্য ব্যক্তি যখন সামনে থাকে শ্রমিক নেতা হিসেবে তাকে সমর্থন জানানো যাবে না এমনটি নয়।

জয়নাল আবেদিনের মতো লোক রাজনীতিতে এসেছেন। তিনি বোঝেন শ্রমিকের কষ্টটি কোথায় লুকায়িত। এমন লোক জনপ্রতিনিধি হলে দেশ ও দশের সকলের কল্যাণ বয়ে আনবে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জয়নাল আবেদিনকে সংবর্ধনা প্রদান করেন। নেতাকর্মীরা পুরো অনুষ্ঠানে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়নাল আবেদিনকে নারায়ণগঞ্জ-৫ (সদর-বন্দর) আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে দেখতে চান স্লোগানে মুখরিত করে রাখেন।