নদীতে ঝাঁপ দেয়ার দুইদিন পরে মেঘনা থেকে রিয়াদের লাশ উদ্ধার

সোনারগাঁ(আজকের নারায়নগঞ্জ)   মায়ের সঙ্গে অভিমান করে মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুর ব্রিজ থেকে নদীতে ঝাঁপ দেয়ার দুইদিন পর মারুফ হাসান রিয়াদ নামে এক স্কুলছাত্রের মরদেহ সোনারগাঁ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২১ জুলাই) সন্ধ্যায় সোনারগাঁয়ের চরকিশোরগঞ্জ এলাকায় মেঘনা নদীতে ভাসমান অবস্থায় ওই স্কুলছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহত মারুফ হাসান রিয়াদ বন্দর উপজেলার মুছাপুর মিনারবাড়ি এলাকায় মিলন মিয়ার ছেলে। সে নারায়ণগঞ্জের বন্দর এলাকার এবিএম সামসুজ্জোহা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রিয়াদ তার মায়ের সঙ্গে অভিমান করে বুধবার সকালে মামার বাড়ি মুন্সীগঞ্জর রতনপুর চলে যায়। সেখানে থেকে ফেরার পথ বিকেলে রিয়াদ মোক্তারপুর ব্রিজ থেকে স্কুল ব্যাগসহ নদীত ঝাঁপ দেয়। ঘটনার খবর পেয়ে মুন্সীগঞ্জ সদর থানা পুলিশ ব্রিজ এলাকা থেকে ওই ছাত্রের ব্যবহৃত ব্যাগটি উদ্ধার করলেও রিয়াদকে উদ্ধার করতে পারেনি। দুইদিন পর শনিবার সন্ধ্যায় সোনারগাঁয়ের চরকিশোরগঞ্জ এলাকার মেঘনা নদীতে তার মরদেহ ভেসে ওঠে।

সোনারগাঁ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোরশেদুল আলম জানান, মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।