যে মাদক বিক্রি করে তার বেঁচে থাকার প্রয়োজন নাই — শামীম ওসমান

আজকের নারায়নগঞ্জঃ  নারায়ণগঞ্জ -৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, নির্বাচনের আগে আমার পুলিশ, সন্ত্রাসীর দরকার নাই। এলাকার মুরুব্বীদের যারা সম্মান করবে সে যদি বিএনপিরও হয় আমার মাথার তাজ হয়ে থাকবে।

মুরুব্বীরা আমার বাবা, তাদের চোখে পানি আসলে মনে করি আমার বাবার চোখে জল। বিএনপিকে ভোট দিয়ে দিয়েন সমস্যা নাই কিন্তু আমি চাই শান্তি। ইসদাইর এক সময় ভাল ছিল। কেউ এমপির ভাই, চাচা, ভাতিজার, কেউ পুলিশের শালা, কেউ সাংবাদিক হিসেবে আসে। যে যে উদ্যেশে আসুক খারাপ করলে ছাড় নাই।

শনিবার (২১ জুলাই) বিকালে বাংলা ভবনে বৃহত্তর ইসদাইর পঞ্চায়েত কমিটির আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শাহ নিজামের পরিচালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন,ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফ উল্লাহ বাদল,সাধারন সম্পাদক হাজ্বী শওকত আলী,এএসপি মেহেদী হাসান সিদ্দীকি,সহকারী কমিশনার সদর প্রত্যয় হাসান,নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এড হাসান ফেরদৌস জুয়েল,ফতুল্লা মডেল থানার ওসি শাহ মঞ্জুর কাদের, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল,ইব্রাহীম চেঙ্গিস,মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন,ফতুল্লা ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপন, এনায়েত নগর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আসাদুজ্জামান,আবুল কাশেম,আলী আকবর মেম্বার,কামরুল মেম্বার ইসদাইর গাবতলী এলাকার মুরুব্বীগন।

এসময় শামীম ওসমান আরো বলেন, গতবার ২৬শ কোটি টাকার কাজ করেছিলাম এবার করেছি ৭১০০ কোটি টাকার কাজ। আমি পঞ্চায়েত ব্যবস্থায় বিশ্বাসী। একটি সেন্ট্রাল পঞ্চায়েত কমিটি গঠন করার নির্দেশ দিয়ে বলেন, হোমরা চোমরারা এসে জুড়ে বসায় মুরুব্বীরা আজ দুরে সরে গেছে। দুনিয়াতে চার ক্যাটাগরীর লোক আছে ভাল, খুব ভাল, খারাপ, খুব খারাপ। আমরা খুব খারাপকে চাইনা। খারাপকে ভাল করার চেস্টা করবো।

এ সময় তিনি ইসদাইরে ৮ টি পঞ্চায়েত কমিটি আছে উল্লেখ করে বলেন, আজ থেকে কোন পঞ্চায়েত থাকবেনা। ভাল মানুষ নিয়ে কমিটি করবেন প্রয়োজনে প্রতি ওয়ার্ডে করবেন।

এ ছাড়াও তিনি মাদকের বিরুদ্ধে হুশিয়ার উচ্চারন করে বলেন যে মাদক বিক্রি করে সে শয়তানের চেয়েও খারাপ। তার বেঁচে থাকার প্রয়োজন নাই।  মাদকের বিরুদ্ধে কোন ছাড় নেই। পুলিশও যদি করে আমি তাদের বিরুদ্ধে আছি। কোন ধরনের চাদাঁবাজ থাকবেনা। মা বাবার প্রতি যে সন্তান সম্মান করবেনা তাদের দরকার নেই। রাত ২ টায় আমার বোনেরা রাস্তায় হাঁটবে কেউ কিছু বলতে পারবেনা।

পরে সাংসদ শামীম ওসমান ইসদাইর গাবতলী এলাকায় করা বিভিন্ন উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন।