গোপালনগর এলাকায় দুই গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ

আজকের নারায়নগঞ্জঃ ফতুল্লার পূর্ব গোপালনগর এলাকায় দুই গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় এক পক্ষে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় উভয় গ্রুপের ১০ জন্য আহত হয়েছে। আটক করা হয়েছে সাদ্দাম নামে এক স্ত্রাসীকে।

শুক্রবার (২০ জুলাই) রাতে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর পুরো এলাকাজুড়ে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। আবারও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সূত্র জানায়, সাইদুর রহমান নামে এক ব্যক্তি পূর্ব গোপালনগর এরাকায় নতুন জমি কিনে বাড়ি নির্মাণের চেষ্টা করলে স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ওই বাড়ির সমস্ত নির্মাণ সামগ্রী দিতে চায়। তাঁদের এ প্রস্তাবে রাজি হয়নি বাড়ির মালিক। পরবর্তী ছাত্রলীগ নির্মাণ সামগ্রী দিতে ব্যর্থ হয়ে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে কাজ বন্ধ করে দেয়। এ ঘটনার সংবাদে ফতুল্লার মাসদাইর ও গাবতলী এলাকা থেকে সাইদুরের লোকজন কয়েকটি হোন্ডাযোগে গোপালনগর ছুটে এসে বিষয়টি মিট করতে চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় এবং এক পর্যায়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় পূর্ব গোপালনগর এলাকার ছাত্রলীগ ক্যাডার বিপ্লব, জসিম, বিল্লাল, নাসির, ফজর আলী, মেহেবুবসহ ৮/১০ জন আহত হয়। এদের মধ্যে ছাত্রলীগ ক্যাডার জসিমের ভাই বিল্পবকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানার এসআই আব্দুস সালাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, দু’গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনার সংবাদে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাহিরের লোকদের গিয়ে পাওয়া যায়নি। আর স্থানীয় লোকজন গাবতলীর সাদ্দাম নামের এক ব্যক্তিসহ দুটি মটরসাইকেল জব্দ করা হয়। ঘটনার তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।