ইতিহাস গড়ে পাপুয়া নিউগিনি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে

ক্রীড়া ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ): ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলার সুযোগ নিশ্চিত করেছে পাপুয়া নিউগিনি। বাছাইপর্বে আজ কেনিয়াকে ৪৫ রানে হারিয়ে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল আসরে জায়গা করে নিয়েছে পিএনজি। বাছাইপর্বে ‘এ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়ে অস্ট্রেলিয়ার টিকেট নিশিত করেছে পাপুয়া নিউগিনি। ‘বি’ গ্রুপের সেরা হয়ে দ্বিতীয় দল হিসেবে বিশ্বকাপের মূল আসর নিশ্চিত করেছে আয়ারল্যান্ড। খবর : ক্রিকফ্রেঞ্জি।

বিশ্বকাপ নিশ্চিত করতে শুধু জয়ই যথেষ্ঠ ছিল না পাপুয়া নিউগিনির। তাদের তাকিয়ে থাকতে হয়েছিল বাছাই পর্বে নেদারল্যান্ডস এবং স্কটল্যান্ডের ম্যাচে। এই ম্যাচে আগে ব্যাট করে ১৩০ রান করে স্কটল্যান্ড।এই লক্ষ্য ১২.৩ ওভারে ছুঁয়ে ফেললে কপাল পুড়ত পাপুয়া নিউগিনির। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে নেদারল্যান্ডসের জিততে খেলতে হয়েছে ১৭ ওভার পর্যন্ত। আর তাতেই বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়ে যায় পাপুয়া নিউগিনির।

কেনিয়ার বিপক্ষে আগে ব্যাট করে ১৯.৩ ওভারে ১১৮ রানে অল আউট হয় পাপুয়া নিউগিনি। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৫৪ রান করেন নরমান ভানুয়া। ১৭ রান এসেছে সেসে বাউয়ের ব্যাট থেকে। ১২ রান করেছেন জেসন কিলা। দলটির আর কেউ দুই অঙ্কে পৌঁছুতে পারেনি। কেনিয়ার হয়ে ১৮ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন এমানুয়েন বান্ডি। পাপুয়া নিউগিনির সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই উইকেট হারাতে থাকে কেনিয়া।

দলটির হয়ে সর্বোচ্চ ২৯ রান করেন ওপেনার ইরফান করিম। ১০ রান আসে কলিন্স অবুয়ার ব্যাট থেকে। এছাড়া আমান গান্ধী ১৪ রান করে অপরাজিত থাকেন। দলটির আর কোনো ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কে পৌঁছুতে পারেননি।এর ফলে ৭৩ রানেই গুটিয়ে যায় কেনিয়ার ইনিংস। পাপুয়া নিউগিনির হয়ে ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন নোসাইনা পোকানা এবং আসাদ ভালা। ২টি করে উইকেট পেয়েছেন নরমান ভানুয়া এবং ড্যামিয়েন রাভু।