এফডিসিতে নিরাপত্তায় বাড়াবাড়িঃ সোহেল রানার কার্ড দেখতে চাইলো পুলিশ!

বিনোদন ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ): বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচনকে ঘিরে নিরাপত্তার চাদরে বিএফডিসি। তার মাঝেই সকাল সাড়ে ১১টায় ভোট দিতে আসেন অভিনেতা সোহেল রানা। কিন্তু নিরাপত্তার বেস্টুনি থাকার কারণে প্রবেশে পুলিশি বাধার মুখে পড়েন।

এ সময় কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যরা তাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে কার্ড দেখতে চান। তিনি সোহেল রানা পরিচয দিলেও তাকে প্রায় ৫ মিনিট দাঁড় করিয়ে রাখা হয়।

এসব দেখে ভোট দিতে এসে অভিনেতা সোহেল রানা নির্বাচনের নিরাপত্তাকে ‘বাড়াবাড়ি’ বলে দাবি করেন।

এরপর এফডিসির গেটে পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকনকে প্রবেশ করতে না দেয়ায় উত্তেজনা তৈরি হয়। নন্দিত নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু, গাজী জাহাঙ্গীর, প্রযোজক মোহাম্মাদ ইকবালসহ আরও কয়েকজন নির্মাতাকেও প্রবেশে বাধা দেয়া হয়। এই খবর শুনে পরিচালক ও প্রযোজক সমিতির নেতারা ছুটে আসেন। গেটে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশদের সাথে এ সময় বাক-বিতণ্ডা হয় নেতাদের, দেখা দেয় চরম উত্তেজনা।

এরপর প্রধান নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চনের ফোন পেয়ে খোকনসহ সবাইকে প্রবেশ করতে দেয়া হয়।

পরিচালকদের নেতা খোকনসহ অন্যান্য নির্মাতাদের গেটে আটকে দেয়ায় এটাকে পরিচালকদের অপমান হিসেবে দেখছেন সমিতির নেতারা। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রযোজকরাও। তারা এফডিসিতে নিরাপত্তার নামে এ ধরনের হয়রানির জন্য নির্বাচন কমিশনার ও এফডিসির মহাপরিচালকের কাছে অভিযোগও জানিয়েছেন।

সাংবাদিকদের সোহেল রানা বলেন, এই প্রথম এমন নির্বাচন দেখছি। নির্বাচন দেখে মনে হচ্ছে এটা পুলিশি ক্যাম্প। এফডিসিকে তো পুলিশ ক্যাম্প মনে হচ্ছে। এটা নির্বাচন মনে হচ্ছে না। শিল্পীদের নির্বাচনে এত পুলিশ থাকবে কেন?

ভোট দেওয়ার পর তিনি আরো বলেন, আমার বিশ্বাস এবারের নির্বাচনে শিল্পীরা যাদের ভোট দিয়ে নির্বাচন করবেন, নেতৃত্বে এসে তারা শিল্পীদের নিরাশ করবেন না।

এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত বদিউল আলম খোকন বলেন, ‘এটা একেবারেই যাচ্ছেতাই একটা ব্যাপার। এফডিসির ভেতরে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন প্রযোজক ও পরিচালক সমিতির। সেখানেও এমন নিরাপত্তার কড়াকড়ি দেখা যায় না। আজ কাউকেই ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। একটা সামান্য নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পুরো এফডিসিকে এভাবে স্থবির করে রাখা কোনোভাবেই কাম্য নয়।’

নন্দিত নির্মাতা কাজী হায়াত বলেন, ‘আমি পরিচালক। সরকার আমাকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার দিয়েছে। আমাকে এফডিসিতে প্রবেশে কেন বাধা দেয়া হবে? আমি খুবই অপমানিত হয়েছি। শিল্পীদের নির্বাচনের আগেও দেখেছো। অনেক হাই প্রোফাইল তারকারা নির্বাচন করেছেন। এমন বাজে অবস্থা ছিল না।’

এদিকে শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে চলছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ভোটগ্রহণ। চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। এবারের নির্বাচনে ৪৪৯ জন ভোটার তাদের পছন্দের প্রার্থীকে নির্বাচিত করবেন। নির্বাচনে প্রথমবারের মতো কোনো নারী প্রার্থী সভাপতি পদে লড়ছেন। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী চিত্রনায়িকা মৌসুমী।