রূপগঞ্জে পুলিশের হাতে ছাত্রলীগ নেতা লাঞ্চিতঃ প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

সংবাদদাতা,রূপগঞ্জঃ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পুলিশের হাতে  বৃহস্পতিবার রাতে ছাত্রলীগের নেতাসহ ৯ ব্যক্তি নিগৃহীত হওয়ার  প্রতিবাদে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের শাস্তির দাবীতে শুক্রবার সকালে উপজেলার এশিয়ান হাইওয়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ও স্থানীয় এলাকাবাসী। উপজেলার এশিয়ান হাইওয়ে সড়কের কাঞ্চন পৌরসভার কালাদী এলাকায় ঘটে এ ঘটনা।
আহত কাঞ্চন পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইমরান হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ভোলাব উপ-পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশের নায়েক ফারুক ও তার দুই সহযোগী কনস্টেবল সাজেদুল ও সোহাগ এশিয়ান হাইওয়ে সড়কের কালাদী মোড়ে এসে কোন কারণ ছাড়া মুদি দোকানদার আতাউর, তার ছেলে বাবু, রাজমিস্ত্রি মিয়াজউদ্দিন ও সাব্বির মিয়াকে বেধড়ক লাঠিপেটা শুরু করে। খবর পেয়ে কাঞ্চন পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইমরান হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাকিল আহমেদ টিপু, ছাত্রলীগ নেতা আরিফ হোসেন, সোহেল, বাছেদ ঘটনাস্থলে এসে ঐ পুলিশ সদস্যদের কাছে তারা এর কারণ জানতে চাইলে পুলিশ তাদের উপরও চড়াও হয়। একপর্যায়ে পুলিশ সদস্যরা পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইমরান হোসেন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শাকিল আহমেদ টিপু, ছাত্রলীগ নেতা আরিফ, সোহেল ও বাছেদকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। এ ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাবাসী অভিযুক্ত পুলিশের উপর ক্ষিপ্ত হয়। খবর পেয়ে ভোলাব উপ-পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই ছাব্বির আহমেদের নেতৃত্বে কয়েকজন পুলিশ অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের ব্যাপারে শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে স্থানীয় এফ খান ফিলিং ষ্টেশনে বসে এর সমাধান করার আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে।

এদিকে, শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের সমাধানের ব্যাপারে এফ খান ফিলিং ষ্টেশনে পুলিশের কোন কর্মকর্তারা না আসায় সাড়ে ১০টার দিকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ও এলাকাবাসী বিক্ষুব্দ হয়ে এশিয়ান হাইওয়ে সড়কের কালাদী এলাকায় অবরোধ করে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে। এতে করে সড়কের উভয়দিকে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ফের অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোেেগর ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী ও এলাবাসী অবরোধ তুলে নেয়।
এ ব্যাপারে কাঞ্চন পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আজিজুল ইসলাম নিরব বলেন, ছাত্রলীগ নেতাকর্মী ও সাধারন জনগনের উপর পুলিশের হামলার তীব্র নিন্দা জানাই। আমি যথাযথ কতৃপক্ষের কাছে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের উপযুক্ত শাস্তি দাবী করছি।
এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান বলেন, আমি ঘটনাটি শুনেছি। এ ঘটনার দ্রুত সমাধানের জন্য ভোলাব উপ-পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। অভিযোগ প্রমানীত হলে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থ নেয়া হবে।