জ্যামাইকায় প্রস্তুতি ম্যাচে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ

ক্রীড়া ডেস্ক : জ্যামাইকার কিংস্টনে ইউডব্লিউআই ভাইস চ্যান্সেলরস একাদশের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। ৪ উইকেটে জিতেছে সফরকারীরা।

বৃহস্পতিবার রাতে আগে ব্যাটিং করে ইউডব্লিউআই ভাইস চ্যান্সেলরস একাদশ নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে তুলে ২২৭ রান। জবাবে ৪৩.৩ ওভারেই জয়ের বন্দরে নোঙর ফেলে টাইগাররা।

টেস্ট সিরিজে বাজে পারফরম্যান্সের পর ওয়ানডেতে ঘুরে দাঁড়াতে প্রত্যয়ী বাংলাদেশ। সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ২২ জুলাই গায়ানায়। এর আগে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে প্রস্তুতি ম্যাচই ছিল একমাত্র ভরসা। সেখানে ব্যাট-বলে দারুণ পারফর্ম করেছে দল। ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফির খেলার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত খেলেননি। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ দলকে নেতৃত্ব দিয়ে জয়ের স্বাদ দিয়েছেন। মাশরাফিসহ এ ম্যাচে খেলেননি সাকিব, তামিম, রাহী ও অপু।

বল হাতে দ্যুতি ছড়িয়েছেন স্পিনার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ও রুবেল হোসেন। ডানহাতি স্পিনার মোসাদ্দেক ১৪ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ক্যারিবীয়ানদের রানের চাকা আটকে রাখেন। দীর্ঘদিন পর বল হাতে আলো ছড়িয়েছেন রুবেল হোসেন। ডানহাতি এ পেসার ৪০ রানে নিয়েছেন ৩ উইকেট। ইনজুরি থেকে ফিরে আসা মুস্তাফিজুর রহমান ভালো বোলিং করলেও উইকেটের স্বাদ পাননি।

ইউডব্লিউআই ভাইস চ্যান্সেলরস একাদশের হয়ে ওটলে ৫৮, হজ ৪৪, জাঙ্গো ৩৬ ও ক্রিস গেইল ২৯ রান করেন।

২২৮ রান তাড়া করতে নেমে তৃতীয় বলে উইকেট হারায় বাংলাদেশ। স্কোরবোর্ডে রান না উঠতেই আন্দ্রে রাসেলের বলে এলবিডব্লিউ হন এনামুল হক বিজয়। দলে ফিরলেও ফেরাটা সুখকর হলো না বিজয়ের। দ্বিতীয় উইকেটে শান্ত ও লিটন ১৫.৫ ওভারে স্কোরবোর্ডে ৯০ রান যোগ করেন। খুব সাবলীল ব্যাটিং করেন এই দুই ব্যাটসম্যান। ৪১ রানে লিটন পাওয়েলের হাতে ব্যথা পাওয়ায় মাঠ ছাড়েন দলীয় ৯০ রানে।

সঙ্গী যাওয়ার পর শান্ত বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। পাওয়েলের বলে ৪৩ রানে ক্যাচ দেন হজের হাতে। এরপর মুশফিকুর রহিম ব্যাটিংয়ে নেমে ২২ গজের ক্রিজে আলো ছড়ান। একপ্রান্ত আগলে রেখে রানের চাকা সচল রাখেন মুশফিক। অন্যপ্রান্তে মাহমুদউল্লাহ (১০), সাব্বির রহমান (৪), মোসাদ্দেক (১১) দ্রুত সাজঘরে ফেরেন।

মোসাদ্দেকের ফিরে যাওয়ার পর লিটন আবার ব্যাটিংয়ে আসেন। হাফ সেঞ্চুরি তুলে দলকে জয়ের কাছাকাছি নিয়ে যান ডানহাতি ব্যাটসম্যান। মুশফিক ৫০ বলে এবং লিটন ৬১ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন। শেষ পর্যন্ত মুশফিক ৭৫ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়লেও লিটন আউট হন ৭০ রানে। মুশফিকের সঙ্গে ৪ রানে অপরাজিত থাকেন মিরাজ।

প্রস্তুতি ম্যাচের পারফরম্যান্স নিশ্চিতভাবেই আত্মবিশ্বাস জোগাবে বাংলাদেশকে। মাশরাফি, সাকিব, তামিমকে ছাড়াই প্রস্তুতি ম্যাচে ভালো করেছে সফরকারীরা। মূল মঞ্চে তাদেরকে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশ রঙিন পোশাকে ভালো কিছু করবে এমনটাই প্রত্যাশা করছে ক্রিকেটপ্রেমিরা।