শরীফ শেখের কবিতা

নিঃস্বার্থ
– শরীফ শেখ

তুমি আমাকে ভালোবাসো
তাই আমিও তোমাকে ভালোবাসার ভাব দেখাই
আমার কোনো স্বার্থ নেই।
তুমি আমাকে ঘৃণা করো
তাই আমিও তোমাকে ঘৃণা করি
আমার কোনো স্বার্থ নেই।
তোমার আঙিনায় শান্তি প্রতিষ্ঠায়
আমি প্রতিষেধক বটিকা পাঠাই
আমার কোনো স্বার্থ নেই।
তোমার ঘরে অন্যকে
প্রবেশে বাধা দেই
আমার কোনো স্বার্থ নেই।
তুমি শক্তিশালী হয়ে উঠবে কেন?
আমি তো আছি তোমাকে দেখতে
আমার কোনো স্বার্থ নেই।

তোমার গৃহবিবাদ আমি মেটাবো
প্রয়োজনে তোমার আঙিনায় বোমা ফাটাবো
সবই তোমার জন্যে
আমার কোনো স্বার্থ নেই।
তোমার পাকা ধানে কাউকে মই দিতে দেব না
প্রয়োজনে আমি ধান কেটে নেব
জানো তো, আমার কোনো স্বার্থ নেই।

তোমার মুরগী ধরবে আমার শেয়ালে
তুমি খাবে দাবে চুপ থাকবে
আমার কোনো স্বার্থ নেই।
তোমার খাবার আমি দেব
তুমি শুধু বাজারটাই দেবে
তুমি শুধু খেলার মাঠটা আমায় দেবে
আমার কোনো স্বার্থ নেই।
তোমার ডলার আমার হবে
তুমি কী করবে কী না করবে
বলে দেব আমি
আমার কোনো স্বার্থ নেই।

আমি তোমাকে ঋণ দেব
তুমি ঋণের টাকায় কিনবে আমার পঁচা পণ্য উচ্চ মূল্যে
আমার দুই আনা দামের পরামর্শককে
চার আনায় বেতন দেবে সেই টাকায়
আমার কোনো স্বার্থ নেই।

তুমি তো কথাই বলতে পারো না
যা-ও বা বলো চাষাভূষার ন্যায়
আমি তোমাকে ভাষাও শেখাবো
তুমি শুধু বৈদেশিক মুদ্রায় বেতন দেবে
আমার কোনো স্বার্থ নেই।
তোমার সংস্কৃতির সাথে আমার সংস্কৃতি
ঢুকিয়ে দিয়ে দেব মিলিয়ে দেব
আমার সংস্কৃতিই হবে তোমার
আর তুমি স্তুতি গাইবে আমার জপমালায়
আমার কোনো স্বার্থ নেই।

তোমার কোনো পরমাণু শক্তির দরকার নেই
আমার তো পারমানবিক বোমা আছে
তোমার সবকুল রক্ষার দায়িত্ব নেব আমি
তুমি শুধু আমার কথা শুনবে
তোমার নিজের কোনো চিন্তাই থাকবে না
আর এসব শুধু তোমার স্বার্থ রক্ষার জন্যে
আমার কোনো স্বার্থ নেই।

তুমি মনে রেখো
তোমার ঘরের শত্রুই বিভীষণ
আর আমিই শুধু তোমার আপন
আমার আপণ থাকবে তোমার আঙিনা জুড়ে
আমার কোনো স্বার্থ নেই
আমি নিঃস্বার্থভাবে শুধুই তোমার।