হাই-বাদলকে কালামের চ্যালেঞ্জঃ ‘পারলে দল থেকে বহিস্কার করেন

সোনারগাঁ(আজকের নারায়নগঞ্জ): নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আঃ হাই ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসনাত শহীদ মোঃ বাদলকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম।

শনিবার(১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার মেঘনা নিউ টাউন এলাকায় পিরোজপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে সদস্য সংগ্রহ ও বই বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন কালাম।

কালাম বলেন,  আমিও জেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলাম আপনারা পারলে আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন, পারলে আমাকে দল থেকে বহিস্কার করেন, আমার বিরুদ্ধে মামলা করেন। কারণ আমি আপনাদের রাজনীতি করিনা আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনীতি করি।

তিনি বলেন,বহিস্কার যদি আমাকে কেউ করার ক্ষমতা রাখে সেটা হলো আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তারা যদি আমাকে দল থেকে বহিস্কার করার চিঠি দেয় আমি মাথানত করে তাদের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে দল থেকে বিদায় হয়ে যাবো। তার আগে কেউ আমাকে বহিস্কার কিংবা সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার কোন এখতিয়ার কেউ রাখে না।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাহফুজুর রহমান কালাম, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্র নেতা এইচ এম মাসুদ দুলাল, মোগড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু,জেলা বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদের সভাপতি এডভোকেট ফজলে রাব্বি, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু, জেলা পরিষদের সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম, জেলা শ্রমিক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং কাচঁপুর শিল্পাঞ্চল শ্রমিক লীগের সভাপতি হাজী আঃ মান্নান মেম্বার, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি গাজী মজিবুর রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাসেল মাহমুদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম রবিন, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আরিফুল ইসলাম, জেলা তাতীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি দেওয়ান কামালসহ প্রতিটি ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ কয়েক হাজার নেতাকর্মী।

প্রসঙ্গত: শুক্রবার(১৩ সেপ্টেম্বর) জামপুর ইউনিয়নের ওটমা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বীরু-সামসুল ইসলামের আয়োজনে জামপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটি ঘোষনা উপলক্ষে বিদ্যালয় মাঠের  জনসভা পন্ড করে দেয় কায়সার- কালামপন্থি যুবলীগ নেতাকর্মীরা।

ওটমা বিদ্যালয়ে দু’পক্ষের সভাকে ঘিরে গত দু’দিন ধরে সেখানকার নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা চলছিল। বিদ্যালয়ে সভা করতে দু’দলই মারমূখি অবস্থান নেয়। খবর পেয়ে প্রশাসন বিদ্যালয়ে সকল প্রকার সভা নিষিদ্ধ করে দেন।

পরবর্তীতে বিদ্যালয়ে সভা করতে না পেরে ডাঃ বিরুর বাড়িতে সভা করেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আঃ হাই ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসনাত শহীদ মোঃ বাদল। সেখান তারা অভিযোগ করেন কালামের নির্দেশে তার নেতাকর্মীরা বিরুর লোকজনের উপর হামলা চালিয়ে আহত করেছে।। এজন্য তারা কালামকে দল থেকে বহিস্কার ও মামলার হুমকি দেন।