খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে আগামী নির্বাচন দিতে বাধ্য হবে- মামুন মাহমুদ

সংবাদদাতা,ফতুল্লাঃ বর্তমান অগণতান্ত্রিক ভোটার বিহীন শ্বৈরাচারী সরকার তিন তিনবার নির্বাচিত বেগম খালেদা জিয়াসহ বিএনপির নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে একের পর এর মিথ্যা মামলা দিয়ে দাবিয়ে রাখতে চাইছে।

এমনকি ক্ষমতায় আসতে বিএনপির চেয়ারপারর্সন বেগম খালেদা জিয়া সহ রাজপথের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দায়ের করে জেল হাজতে পেরন করছে। সোনারগাঁও থানার দ্রুত বিচার আইনের একটি মামলা ও একই সাথে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার হেফাজদের অপর একটি মামলার হাজিরা শেষে জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদ এসব কথা গুলো বলেন।

মঙ্গলবার (১০ জুলাই) সকালে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহম্মেদ হুমায়ূন কবীরের আদালতে ও অতিরিক্ত দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক জাকির হোসাইন এর আদালতে তিনি হাজিরা দেন।

এসময় তিনি আরো বলেন, অতীতে কোন সরকার মামলা হামলা করে তাদের শেষ রক্ষা করতে পারে নাই। এই সরকার ও মামলা হামলা অত্যাচার করে তাদের শেষ রক্ষা করতে পারবেনা। জনগনের প্রতিরোধের মুখে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে আগামী নির্বাচন দিতে বাধ্য হবে ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, এডভোকেট খোরশেদ আলম মোল্লা, সোনারগাঁও থানার বিএনপির সাংগঠনেক সম্পাদক কাজি নজরুল ইসলাম টিটু, জামপুর ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক লুৎফর রহমান মেম্বার, কাচপুর ইউনিয়নের সহ-সভাপতি মোাঃ হানিফ, কাচপুর ইউনিয়নের বিএনপির সভাপতি হাজী সেলিম, মোগড়াপাড়া ইউনিয়ের সাবেক সভাপতি সালাউদ্দিনসহ শতাধিক নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।