শীতলক্ষায় ট্রলারডুবিঃ ৪ যাত্রীর লাশ উদ্ধার,এখনো নিখোঁজ ২

আজকের নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যায় লঞ্চের ধাক্কায় একটি যাত্রীবাহী ট্রলার থেকে পড়ে কয়েকজন যাত্রীর নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় চারজনের লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরি দল। তবে এখনো আরো ২ জন নিখোঁজ রয়েছেন বলে পরিবারগুলোর দাবী।

ট্রলারডুবির ঘটনায় যাদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে তারা হলেন, বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জ লক্ষ্মীর চর এলাকার বাসিন্দা কালা চান মিয়ার ছেলে দীন ইসলাম (২৯), রমিজউদ্দিনের ছেলে ইমন (২২), জিয়াবল হোসেনের ছেলে আনোয়ার হোসেন ফালান (৪০), মদনগঞ্জের শান্তিনগর এলাকার ফকির চানের ছেলে জনি (২২)।

১০ জুলাই মঙ্গলবার সকাল থেকে সেখানে তল্লাশি শুরু করেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরিরা।

প্রথমে সকাল ১০টায়  দিন ইসলাম (৩৫), ইমন (২২), জনি (২২)  নামের  তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেন তারা।।

পরিবারের দাবির ভিত্তিতে ফালান (২৩) নামে আরও একজনের মরদেহ সকাল সাড়ে ১১টায় উদ্ধার করেন ডুবুরিরা। পরে পরিবারের সদস্যরা তার মরদেহ শনাক্ত করেন।

এঘটনায় এখনো নিখোঁজ রয়েছেন সুজন (১৯) ও ওসমান গণিসহ (৪০) বেশ কয়েকজন। তারা সবাই বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জ শান্তিনগর এলাকার বাসিন্দা।

দ্বিতীয়দফা  সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ফালান নামে আরো একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান আরিফুর রহমান।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার আরিফুর রহমান  জানান, রোববার রাত সোয়া ৯টায় শহরের সেন্ট্রাল খেয়াঘাট থেকে একটি ট্রলার ১০০ থেকে ১৫০ জন যাত্রী নিয়ে মদনগঞ্জ ঘাটের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে। এ সময় ট্রলারটি ঘোরাতে গিয়ে ঘাটের পাশেই আগে থেকে থামিয়ে রাখা লঞ্চের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ট্রলার থেকে ছিটকে পড়ে বেশ কয়েকজন নিখোঁজ হন।

পরে তাদের স্বজনরা ফায়ার সার্ভিসকে বিষয়টি জানালে সোমবার সকাল ৬ টা থেকে ১৩ জনের একটি ডুবুরি দল শীতলক্ষ্যা নদীতে তল্লাশি শুরু করে। সকালে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

সদরঘাট নদী ফায়ার স্ট্রেশন অফিসার আব্দুল মালেক জানান,এখন পর্যন্ত ৪ জনের মররেদহ করা হয়েছে। ২ জন নিখোঁজ রয়েছেন। তাদের উদ্ধার না করা পর্যন্ত উদ্ধার তৎপরতা অব্যবহত থাকবে।

নারায়ণগঞ্জ নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিয়াজও  জানান, নিখোঁজদের উদ্ধারে তল্লাশি অব্যাহত রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গেল আট জুলাই রোববার রাত সাড়ে নয়টায় শহরের সেন্ট্রাল খেয়াঘাট থেকে ১০০ থেকে ১৫০ জন যাত্রী নিয়ে বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জ খেয়াঘাটের উদ্দেশ্যে যাওয়ার সময় ট্রলারটি ঘাটের পাশে নোঙর করে রাখা একটি লঞ্চের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এসময় ট্রলারটির ছাদ ভেঙে পড়ে বেশ কয়েকজন যাত্রী নদীতে পড়ে গেলেও অনেকেই সাঁতরে তীরে উঠে পড়েন। তবে নিখোঁজ থাকেন কয়েকজন। এ ঘটনার পর ওই রাত থেকেই বিআইডব্লিউটিএ এবং ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল নিখোঁজদের উদ্ধারে তল্লাশি অভিযান শুরু করে।