দু‘পাশের দোকানের জন্যে নিরাপদ স্থানে সরতে পারলেন না মঞ্জুরুল

 

আজকের নারায়নগঞ্জঃ দু‘পাশের দোকানের জন্যে নিরাপদ স্থানে সরতে পারলেন না মঞ্জুরুল। ফলে শহরে ছেলের বাসায় বেড়াতে এসে লাশ হয়ে ফিরলেন মঞ্জুরুল ইসলাম (৫০)কে। শনিবার (৭ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় নগরীর দিগু বাবুর বাজার সংলগ্ন ফকিরটোলা মসজিদের সামনের রেলওয়ে সড়কে ট্রেনের নীচে কাটা পড়ে নিহত হন তিনি। তিনি রংপুরের গঙ্গাপাড়ার নেওয়ালী গ্রামের মাহতাব উদ্দিনের সন্তান। লাশ উদ্ধার করে কমলাপুর রেলওয়ে থানায় পাঠানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রেলওয়ে সড়ক ধরে হেটে যাওয়ার সময় হঠাৎ ট্রেন আসার শব্দ শুনে নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার চেষ্টা করেন তিনি। তবে দুপাশে সারি সারি দোকানের কারনে নিহত মঞ্জুর নিরাপদ স্থানে যেতে ব্যর্থ হন। এসময় ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা লেগে মৃত্যু বরন করেন তিনি। মৃত্যুর পর লাশ উদ্ধার না করে নিজ নিজ দোকান বন্ধ করে পালিয়ে যান সড়কের ফুটপাত ব্যবসায়ীরা। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে থানার সাব ইন্সপেক্টর আব্দুল্লাহ জানান, নিহত মঞ্জুরুলকে উদ্ধার করে কমলাপুর থানায় পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। তিনি ফকিরা গার্মেন্টসে কর্মরত তার বড় ছেলের বাসায় বেড়াতে এসেছিলেন। দুপুরের খাবার পর শহর দেখতে বের হয়েছিলেন তিনি।