সোহেল তাজের নিখোঁজ ভাগ্নে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক:সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজের ভাগনে সৈয়দ ইফতেখার আলম সৌরভকে পাওয়া গেছে। নিখোঁজের ১১দিন পর বৃহস্পতিবার (২০ জুন) ভোরে ময়মনসিংহের তারাকান্দার একটি রাইস মিলের সামনে থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের উপ-কমিশনার মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ সৌরভকে উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজও জানিয়েছেন, তার মামাতো বোনের ছেলে নিখোঁজ সৈয়দ ইফতেখার আলম প্রকাশ সৌরভকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভোর ৬টায় নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লাইভে আসেন সোহেল তাজ। এসময় তিনি এ তথ্য জানান।

সোহেল তাজ বলেন, একটি গাড়ি থেকে তাকে রাস্তার পাশে রেখে যাওয়া হয়েছে। ওই রাস্তা দিয়ে কিছু মানুষ অফিসে যাওয়ার সময় তাকে দেখে বিষয়টি তার পরিবারকে জানিয়েছে।

ফেসবুক লাইভে তিনি বলেন: তারা সৌরভকে তাদের কর্মস্থলে নিয়ে সেইফ জায়গায় রাখে। সকাল সাড়ে পাঁচটার দিকে খবর পাওয়ার সাথে সাথে আমরা কাউন্টার টেররিজমের সংশ্লিষ্ট ডিসি’র সাথে যোগাযোগ করি। উনি তাৎক্ষণিক সেই এলাকার এসপি’র সাথে যোগাযোগ করেন। এরপর এসপি নিজে গিয়ে সেই লোকেশন থেকে সৌরভকে নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে। সৌরভ এখন পুলিশ কাস্টডিতে আছে। তাকে এখন পুলিশি প্রহরায় আমাদের কাছে নিয়ে আসা হচ্ছে।

এর আগেও এ বিষয়ে একাধিকবার নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লাইভে আসেন সোহেল তাজ। তখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, গণমাধ্যম এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছেও সৌরভকে ফিরে পাওয়ার বিষয়ে বেশকিছু প্রশ্ন রাখেন তিনি।

বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমদের ছেলে ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ তার মামাতো বোনের ছেলেকে (ভাগ্নে) সৈয়দ ইফতেখার আলম প্রকাশ (সৌরভ) অপহরণের অভিযোগ করেছেন।

গত শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে সোহেল তাজ নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে দেওয়া এক পোস্টে তাঁর ভাগ্নেকে অপহরণের কথা জানান। ওই পোস্টে সোহেল তাজ লেখেন, ‘আমার মামাতো বোনের ছেলে (ভাগিনা), সৈয়দ ইফতেখার আলম প্রকাশ (সৌরভ) কে গত রোববার( ৯ জুন) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হসপিটালের সামনে থেকে অপহরণ করা হয়েছেI যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাদেরকে অনুরোধ করছি সৌরভকে ফিরিয়ে দিতে তার পরিবারের কাছেI অন্যথায় আপনাদের পরিচয় জনসম্মুখে প্রকাশ করা হবেI ঘটনার আড়ালে কারা আছেন তা আমরা জানি।

পোস্টের সঙ্গে তার ভাগ্নের একটি ছবিও যুক্ত করে দেন। এ ঘটনা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রীতিমতো হৈচৈ শুরু হয়।

গত সোমবার বিকেলে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সৌরভের মা সৈয়দা ইয়াসমিন আরজুমান দাবি করেন, সওদা নামের এক মেয়ের সঙ্গে প্রেমের ঘটনাকে কেন্দ্র করে এই ঘটনা ঘটতে পারে।