‘পাঁচটি গরু দে,নয়তো বড় ধরনের ক্ষতি হবে’।

 

আজকের নারায়নগঞ্জঃ ৫ গরুর বিনিময়ে জ্বিন তাড়াতে হলো নারায়নগঞ্জের ফতুল্লা কাঠেরপুর এলাকার পলমল গ্রুপের গার্মেন্ট কারখানা কর্তৃপক্ষকে। গার্মেন্টে জ্বীনের আছর পড়ায় এ পদক্ষেপ নিতে হয় তাদের। নয়তো ঘটতে পারে বড় ধরণের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছিল।
শহিলা শ্রমিকদের অসুস্থতাসহ অস্বাভাবিক আচরন এবং গত দুদিন ধরে ছোটখাটো ঘটনা ঘটেই চলেছে গার্মেন্টের মধ্যে। তাই আর ঠিক থাকতে পারছিলেন না কর্তৃপক্ষ। কি আর করা, জ্বীনের আবদার মেনে নিয়ে জবাই করলেন ৫ গরু।
গত দুদিনে ওই কারখানায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে ৭ নারী শ্রমিক অস্বাভাবিক আচরণ করতে থাকেন। মালিকপক্ষ বুধবার (০৪ জুলাই) বাদ মাগরিব কারখানার ভেতরে গরুগুলো জবাই করে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল করেছেন।
শ্রমিকেরা জানান, গত দুই দিনে কোনো কারণ ছাড়াই ৭ জন নারী শ্রমিক কর্মরত অবস্থায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের মধ্যে কারো মুখ থেকে লালা পড়তে দেখা যায় আবার কেউ জ্ঞান হারিয়ে মেঝেতে পড়েছিলেন। এছাড়া কাউকে আবার হাত-পা শক্ত করে পড়ে থাকতে দেখা গেছে! এরপর তাদের উদ্ধার করতে গেলে শুরু করেন অস্বাভাবিক আচরণ। তাদের মধ্যে কেউ কেউ বলতে থাকেন, ‘পাঁচটি গরু দে, আর নয়তো বড় ধরনের ক্ষতি হবে’।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের জেলা শাখার সভাপতি এমএ শাহীন বলেন, গত শনিবার ও মঙ্গলবার দুপুরে কয়েকজন শ্রমিক পলমল গার্মেন্টস কারখানায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। খবর পেয়ে ওই কারখানায় যাই। সেখানে একেকজন শ্রমিক একেক রকম অভিযোগ করেন।
তিনি জানান, শ্রমিকদের কেউ কেউ বলেছেন- পানি পান করে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। আবার কেউ বলেছেন- জ্বীনে ধরে নারী শ্রমিকদের কাছ থেকে পাঁচটি গরু চেয়েছে। যদি মালিক গরুগুলো না দেয় তাহলে বড় ধরনের ক্ষতি হবে।
এই শ্রমিক নেতা বলেন, বিষয়টি রহস্যজনক মনে হলে মালিক পক্ষের সাথে আলোচনা করি এবং সমস্যা সমাধানের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের অনুরোধ জানাই। মালিকপক্ষ বিষয়টি গুরুত্বের সাথে সমাধানের চেষ্টা করেছেন।
কারখানার জেনারেল ম্যানেজার আরিফ হোসেন জানান, আমাদের কারখানায় ১১শ’ শ্রমিক আছেন। হঠাৎ শ্রমিকদের মধ্যে সাতজন নারী শ্রমিক কর্মরত অবস্থায় অসুস্থ হয়ে অস্বাভাবিক আচরণ করতে থাকেন। এতে অন্যান্য শ্রমিকদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দেয়ায় দুদিন কারখানা ছুটি দেয়া হয়।