এই মাঠ প্রসঙ্গে নিশ্চয়ই নেত্রীকে ভুল ম্যাসেজ দেয়া হয়েছে-মেয়র আইভি

ফতুল্লা(আজকের নারায়নগঞ্জ): মাঠ ঘাট খালবিল নদী নালা প্রকৃতির অংশ। আর প্রকৃতিকে ধ্বংশ করে কোনো উন্নয়ন হতে পারে না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেখানে পরিবেশ রক্ষার উপর সবচেয়ে বেশি জোর দিচ্ছেন সেখান এক শ্রেনীর হায়েনা সেই প্রকৃতির উপর থাবা বসাচ্ছে। এসব বন্ধ করতে হবে। নারায়ণগঞ্জের প্রাকৃতিক সম্পদ আমাদেরকে যেকোন মূল্যে রক্ষা করতে হবে।

শনিবার(১৫ জুন) আলীগঞ্জ খেলার মাঠে সোনালী অতীত নারায়নগঞ্জ ও ঢাকার খেলোয়াড়দের মধ্যে ফুটবল প্রীতিম্যাচে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন, টাকা খাওয়ার যে নরপিশাচ সৃষ্টি হয়েছে বাংলাদেশে সেই নরপিশাচরাই পারে একটি খেলার মাঠকে গ্রাস করার মত জঘন্য কাজ করতে। নিশ্চয়ই তারা মানুষ নামধারী নরপশু বলে মন্তব্য করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

আইভী বলেন, এই আলীগঞ্জ খেলার মাঠটি একটি মনোরম পরিবেশে গড়ে উঠেছে। এক পাশে একটি প্রাইমারী ও একটি হাই স্কুল রয়েছে। আরেক পাশে মাঠ ঘেসে রয়েছে বুড়িগঙ্গা নদী। অথচ এত সুন্দর মাঠের বুক চিড়ে কারা এখানে বহুতল ভবন নির্মান করতে চায়। নিশ্চয়ই ওই হায়েনারাই চায় যারা টাকাকে বেশী ভালোবাসে। তাদের মধ্যে যদি বাংলাদেশের লাল-সবুজের চেতনা থেকে থাকে তাহলে এই খেলার মাঠের বুক চিড়ে তারা এখানে ৯ তলা বা ১৫ তলা ভবন নির্মান করতে পারেনা।
তিনি আরো বলেন, এই মাঠ প্রসঙ্গে নিশ্চয়ই নেত্রীকে ভূল ম্যাসেজ দেয়া হয়েছে। সুতরাং নেত্রীকে সত্যটা জানানো আমাদের দায়িত্ব। যেকোন মূল্যে এই মাঠকে আমাদের রক্ষা করতে হবে। কেননা একমাত্র খেলাধূলাই পারে অনেক অপরাধ থেকে যুব সমাজকে দূরে রাখতে।
মেয়র আইভী এসময় গনপূর্ত মন্ত্রী স ম রেজাউলের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, আমি যকটুকু জানি উনি অত্যন্ত ভালো মানুষ। তাকেও নিশ্চয়ই ভূল বুঝানো হয়েছে। তাই তার প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে, ‘দয়া করে আপনি একবার মাঠটা পরিদর্শন করে যান।
অনুষ্ঠানে আলীগঞ্জ ক্লাবের সভাপতি ও শ্রমিকলীগ নেতা কাউসার আহাম্মেদ পলাশের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন-নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাড. মাহাবুবুর রহমান মাসুম ও আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য অ্যাড. আনিসুর রহমান দিপু প্রমূখ।