১৬ জুনের ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচেও বৃষ্টির চোখ রাঙানি !

ক্রীড়া ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ):বিশ্বের ক্রিকেট প্রেমিদের উত্তেজনার শেষ নেই। আর সেই আসরে অন্যান্য ম্যাচগুলোর মধ্যে সবচেয়ে উত্তেজনার পারদ ছড়াবে ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচ। তাদের প্রথম ম্যাচ ১৬ জুন। ম্যাচটিতে বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ।

কিন্তু সবকিছু উপেক্ষা করে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের এই ম্যাচটিতে বৃষ্টির ভ্রুকূটি। স্থানীয় আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী বৃষ্টিতে ভেস্তে যেতে পারে পাক-ভারত ম্যাচও। বিবিসি আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী, মেঘ-রোদের লুকোচুরি খেলা দেখা যাবে রোববার সকাল থেকেই। ম্যানচেস্টারের আকাশে মেঘ দেখা যাবে।

তবে মাচটি ঘিরে নিরাপত্তার জন্য মাঠে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। কোনো অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি এড়াতে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। একাধিক ইংলিশ সংবাদমাধ্যম এ খবর নিশ্চিত করেছে।

ব্রিটিশ গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সেনা মোতায়েন সত্ত্বেও স্টেডিয়ামের আশপাশে লোকজনের চলাফেরা নজরদারি করা হবে। সেই উদ্দেশ্যে ব্রিটিশ পুলিশ স্থানীয় পাকিস্তানি-ভারতীয় সম্প্রদায়ের ভেরিফিকেশন সম্পূর্ণ করেছে।

তুমুল উত্তেজনাকর ম্যাচটির ভেন্যুর দর্শক ধারণক্ষমতা মাত্র ২৫ হাজার। তবে দুই চিরশত্রুর লড়াই দেখতে আবেদন পড়ে প্রায় ৫ লাখ।রাজনৈতিকভাবে চিরবৈরী ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সবসময় উত্তেজনা বিরাজ করে। পাশাপাশি ইংল্যান্ডে রয়েছে বেশ কিছু পাকিস্তানি-ভারতীয় সম্প্রদায়। তাদের মধ্যেও উষ্ণতা পরিলক্ষিত হয়।

এতসব কিছুর উষ্ণতা ছাপিয়ে বৃষ্টির বাগড়া নিয়েই চিন্তিত খেলোযাড়,দর্শকসহ সকলেই। চলমান বিশ্বকাপে এরই মধ্যে পরিত্যক্ত ম্যাচের সংখ্যায় রেকর্ড গড়েছে। এখন পর্যন্ত চারটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছে। এর আগে কোনো বিশ্বকাপে এত ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়নি। এর আগে ১৯৯২ সালে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড ও ২০০৩ সালের দক্ষিণ আফ্রিকা-কেনিয়া-জিম্বাবুয়ে বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি দুটি করে ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছিল।

গত ৭ জুন ব্রিস্টলের পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা, ১০ জুন সাউথাম্পটনে দক্ষিণ আফ্রিকা-ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং ১১ জুন ব্রিস্টলে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা এবং সর্বশেষ আজ ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়। তা ছাড়া তিনটি ম্যাচ টস ছাড়াই পরিত্যক্ত হয়েছে।

এর আগে চারটি বিশ্বকাপে একটি করে ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছিল। ১৯৯৬ বিশ্বকাপে কেনিয়া-জিম্বাবুয়ে, ১৯৯৯ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ড-জিম্বাবুয়, ২০১১ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কা এবং ২০১৫ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছিল।

তবে এখন পর্যন্ত চারটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হলেও ইংল্যান্ডে বৃষ্টির যে হাল আরো কয়েকটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।