সাকিবের সেঞ্চুরীতেই তুষ্ট থাকতে হচ্ছে টাইগার সমর্থকদের ?

ক্রীড়া ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ): সাকিব আল হাসান আসর শুরুর আগেই জানিয়ে রেখেছিলেন হতে চান এবারের বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড়! প্রথম দুই ম্যাচে টানা ফিফটিতে নমুনাও রেখেছেন সেটির। তৃতীয় ম্যাচে এসে সাকিব দৃষ্টি দিলেন আরও উঁচুতে। বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে দিলেন তৃতীয় শতক উপহার! দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে। দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে। যেটি বিশ্বমঞ্চে বাংলাদেশের দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ডও।

১৯৯৯ সালে প্রথমবার বিশ্বকাপে অংশ নিলেও ব্যক্তিগত সেঞ্চুরির দেখা পেতে বাংলাদেশকে অপেক্ষা করতে হয় ২০১৫ বিশ্বকাপ পর্যন্ত। ১৬ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হাঁকান সেঞ্চুরি। এরপরের ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি।

এবারের বিশ্বকাপে আসার আগে বাংলাদেশ দলের হয়ে তাই ওই একজনেরই নামের পাশে ছিল তিন সংখ্যার স্কোর। তবে ভক্ত-সমর্থকদের আর বেশি অপেক্ষা করালেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে আজ শনিবার (০৮ জুন) ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছে গেলেন তিনি। প্রতিপক্ষ সেই ইংল্যান্ডই!

ইংল্যান্ডের দেয়া বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দলীয় ৮ রানে সৌম্য সরকার ফিরে গেলে মাঠে নামেন সাকিব। খেলতে থাকেন স্বভাবসুলভ আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে। ফলাফল ৫৩ বলে ওয়ানডে ক্রিকেটে টানা চতুর্থ ফিফটির দেখা পেয়ে যান তিনি।

তবে শেষ ৬ ইনিংসে ফিফটি করেই এবার আর থামলেন না তিনি। সেটাকে টেনে তিন অংকে নিয়ে এসেছেন তিনি। ইনিংসের ৩২তম ওভারে আর্চারের করা তৃতীয় বলে একরানের জন্য বল সুইপার কাভারের দিকে ঠেলে দিয়ে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি।

৩৯তম ওভারে সাকিব বিদায় নিলে ম্যাচ থেকে টাইগাররা পুরোপুরি ছিটকে পড়ে । ১২১ রান করে বেন স্টোকসের বলে বোল্ড হন সাকিব।

 

এরপর মোসাদ্দেক হোসেন ঝড়ো ২৬ এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ২৮ রান করে সাজঘরের পথ ধরলে কমে শুধু হারের ব্যবধানই। ইনিংসের শেষের দিকে বেন স্টোকসের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ৭ বল বাকি থাকতে ২৮০ রানেই থামে বাংলাদেশের ইনিংস। স্টোকস নেন ৩ উইকেট। এদিকে জোফরা আর্চারও পকেটে পোরেন ৩ উইকেট।

ফলাফল হলো পয়মন্ত ভেন্যু কার্ডিফে ইংল্যান্ডের কাছে  ১০৬ রানের বড় ব্যবধানে বাংলাদেশের হার ।