আগুন নেভাতে গেলেও ৮৫০ টাকা টোল দিয়ে যেতে হবে!

সারাবাংলা(আজকের নারায়নগঞ্জ): আগুন নেভাতে যাওয়ার সময় বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল না দেয়ায় ফিরিয়ে দেয়া হলো ফায়ার সার্ভিসের ইউনিটকে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা বার বার অনুরোধ করলেও ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের গাড়িটি বিনা বাঁধায় ও টোল বিহীনভাবে যেতে চাইলে বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে সেতু কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার(৭জুন) বিকাল আনুমানিক সাড়ে তিনটার দিকে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়।

ভূঞাপুর ফায়ার সার্ভিসের ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলাম জানান , শুক্রবার বিকাল আনুমানিক সাড়ে তিনটার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতুর উত্তরবঙ্গগামী লেনে শ্যামলী পরিবহনের একটি গাড়িতে আগুন ধরে যায়। সেসময় এক ব্যক্তি ৯৯৯ এ ফোন করে ঘটনাটি জানায়। পরে ৯৯৯ থেকে ভূঞাপুর ফায়ার সার্ভিসকে ঘটনাটি জানায়।

পরে ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম আগুন নেভানোর জন্য বঙ্গবন্ধু সেতুতে পৌঁছালে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ির জন্য ৮৫০ টাকা টোল দাবি করে সেতু কর্তৃপক্ষের লোকজন”। “পরবর্তীতে সরকারি ফায়ার সার্ভিসের গাড়ির জন্য কেন টোল দেয়া লাগবে জিজ্ঞেস করলে এক পর্যায়ে তাদের সাথে আমাদের কথা কাটাকাটি হয়”, যোগ করেন তিনি।

পরবর্তীতে আগুন নেভানোর জন্য আসা ফায়ার সার্ভিসের গাড়িটিকে আটকে দেয় সেতু কর্তৃপক্ষ। এরপর বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে আগুন না নিভিয়েই ফেরত আসে ফায়ার সার্ভিসের দলটি। ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলাম আরও বলেন, “বাংলাদেশের এমন কোন স্থান নেই যেখানে সরকারি জরুরি গাড়িতে টোল লাগে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু সেতুতে সরকারি জরুরি সেবা গাড়িগুলোর জন্যও টোল দিতে হয়”।

এবিষয়ে ভূঞাপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো. ফেরদৌস ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, জরুরী সেবা ৯৯৯ থেকে আমাদের ফোন দিয়ে ঘটনাটি জানানো হয়।

এ ব্যাপারে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার ওসি মোশারফ হোসেন বলেন, বিষয়টি নিয়ে বঙ্গবন্ধুসেতু কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করি। সেখান থেকে আমাকে জানানো হয় সেতুতে স্থাপিত ক্যামেরার মধ্যে কোথাও সেতুর উপর আগুন ধরার ঘটনা দেখতে পাওয়া যায়নি। তাই তাদেরকে টোল না দেওয়ার কারণে যেতে দেওয়া হয়নি।”