‘স্বপ্নীল ঈদ জামাত’ এ দুই হাত তুলে কাদঁলেন শামীম ওসমান

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক: ৫জুন বুধবার,২০১৯। পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন। সকাল ৭টা থেকেই মুসল্লী আসা শুরু করে মুহুর্তেই  কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় নারায়নগঞ্জের মাসদাইরস্থ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দান ও সামসুজ্জোহা স্টেডিয়ামের পৌনে দুই লক্ষ বর্গফুট জায়গা। এর পরেও জনতার ঢল অব্যাহত থাকায় ঢাকা-নারায়নগঞ্জ সড়কেও বসে পড়ে মুসল্লীরা। ফলে জামতলাস্থ হীরা কমিউনিটি সেন্টার পর্যন্ত সড়কে মুসল্লিরা নামাজ আদায় করেন। ধারনা করা হচ্ছে প্রায় দেড় লাখ মুসল্লী এ ঈদ জামাতে অংশ নিয়েছেন।

এভাবেই নারায়নগঞ্জের স্মরনকালের ইতিহাসে রেকর্ড হয়ে যাওয়া নারায়নগঞ্জ-৪ আসনের এমপি একেএম শামীম ওসমানের ‘স্বপ্নীল ঈদ জামাত’ সফল হয়ে উঠে।

আর জামাত শেষে মুসলিম উম্মাহের শান্তি ও কল্যাণ কামনা করে ও সকলের ক্ষমা প্রার্থনা করেবিশেষ মোনাজাতে আল্লাহতায়ালার উদ্দেশ্যে দুই হাত তুলে কাদঁলেন তিনি। বক্তব্যে বললেন, আগামীতে আরো বৃহৎ ঈদ জামাতের ইচ্ছা,যেখানে মহিলাদেরর ঈদ জামাতে নামাজ আদায় করা জায়গা থাকতে পারে।

তিনি বলেছেন,সামসুজ্জোহা স্টেডিয়াম,ঈদগাহ ময়দান,ঢাকা-নারায়নগঞ্জ সড়কে পুরোটা স্টীলের কাঠামো দেয়া,যার নজীর বাংলাদেশে এর পূর্বে হয় নাই। কালকে মা-বোনরা এসে বললো,আমরা কি দোষ করলাম। মক্কা-মদীনা-বায়তুল মোকাররমে পারলে আমরা কেন ঈদের জাাতে অংশনিতে পারি না। ‍হুজুররা যদি সহীহ বলেন, তবে আগামীবার ওসমানী স্টেডিয়ামে মা-বোনদের সাথে নিয়া আরো বৃহৎ জামাতের ব্যবস্থা করা হবে।  একটা সময় দেশের বৃহৎ জামাতে পরিনত হবে এটা।

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কের উত্তর পাশে সামসুজ্জোহা স্টেডিয়াম এবং দক্ষিণ পাশে কেন্দ্রীয় ঈদগাহ সমন্বয়ে এ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন নগরীর চাষাঢ়া নূর মসজিদের ইমাম ও খতিব মো. আব্দুস সালাম।
এর আগে ঈদ জামাতকে কেন্দ্র করে আগত মুসল্লিদের নিরাপত্তার জন্য প্রশাসন কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছিল। র‌্যাব, ডিবি, পুলিশ, বিজিবি, আনসারসহ কাজ করেছে সাদা পোষাকের গোয়েন্দা সংস্থা। জায়নামাজ ছাড়া ব্যাগ নিয়ে কেউ প্রবেশ করতে চাইলে তল্লাশির মাধ্যমে তাদের প্রবেশ করানো হয়।

এছাড়া নিরাপত্তার জন্য পুরো মাঠ ও এর আশপাশের এলাকা সিসিটিভির মাধ্যমে পর্যবেক্ষণ করা হয়। ঈদগাহ ও সামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্সের আশে পাশের উচু দালানগুলো থেকে দূরবিনের মাধ্যমে প্রতিনিয়ত মুসল্লিদের উপর নজর রাখা হয়।

বৃহত্তম ঈদ জামাতে অংশ নেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমানের সাথে অংশ নেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া, নারায়ণগঞ্জ জেলা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল প্রমুখ।

উল্লেখ্য,এবার বৃহৎ ঈদ জামাতের স্বপ্ন নিয়ে নারায়নগঞ্জ-৪ আসনের এমপি একেএম শামীম ওসমান আগে থেকেই কাজ শুরু করেছিলেন। বিভিন্ন সভা-সমাবেশেই তার বক্তব্য ছিল এ স্বপ্নীল ঈদ জামাত সফল করার ব্যাপারে।

এ ছাড়াও জামাতস্থলের স্থাপনায় তিনি ডিজিটাল প্রযুক্তির ছোঁয়া লাগিয়েছেন। বাঁশ-কাপড়ের প্যান্ডেলের পরিবর্তে স্টীলের কাঠামোর উপরে শামিয়ানায়ও ছিল নতুনত্ব। ছিল আধুনিক লাইটিং ও সাউন্ড সিস্টেমের ব্যবস্থা। এ ছাড়াও শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েও ব্যাপক গুরুত্ব দিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ।