রূপগঞ্জের মহাসড়কে বাস-লেগুনা সংঘর্ষে প্রান গেল ৪ জনের

রূপগঞ্জ(আজকের নারায়নগঞ্জ):নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাস ও লেগুনার মধ্যে সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো ছয়জন।

আজ মঙ্গলবার(৪জুন) সকালে উপজেলার তারাব এলাকায় পাকিস্তান মিলের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

নিহতরা হলেন কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব উপজেলার সম্বুরপুর এলাকার আমিন মিয়ার স্ত্রী রিনা খাতুন(৩২) ও পিরোজপুর এলাকার মিজান মিয়ার স্ত্রী আছমা বেগম(৩৪)। নিহত লেগুনা চালকসহ আরেক যাত্রীর নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি।

।বিষয়টি নিশ্চিত করে কাঁচপুর হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সামাদ বলেন, সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড় থেকে যাত্রীবাহী লেগুনা (ঢাকা মেট্রো-ন-১৩-৮৪৫৯) রিজার্ভ যাত্রী নিয়ে ভৈরবের দিকে যাচ্ছিলো। পথে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে লেগুনাটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের তারাব পৌরসভার তেতলাবো এলাকায় পৌঁছালে ঢাকাগামী অগ্রদুত পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসের (ঢাকা মেট্রো গ-১১০-৬৫৬৬) সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজনের মৃত্যু হয়।

এ সময় আহত হয় লেগুনার যাত্রী আকলিমা বেগম, আমিন মিয়া, আকাশ, রিংকু দত্ত, এরশাদ, শারমিন আক্তার, সুরমা বেগম, আমির হোসেন, ইমনসহ কমপক্ষে ১৬ জন। এলাকাবাসী আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ স্থানীয় বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করে।  এদের মধ্যে ৩জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মরদেহগুলো ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। দুর্ঘটনার পর বাসের চালক ও তাঁর সহকারী পালিয়ে যায় বলে জানান এসআই আব্দুস সামাদ।