লোকনাথের তিরোধান দিবসে বারোদি আশ্রমে কড়া নিরাপত্তা: ডিআইজি

সোনারগাঁ(আজকের নারায়নগঞ্জ): শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারীর ১২৯তম তিরোধান দিবসে কড়াঁ নিরাপত্তা দেয়া হবে মন্তব্য করে ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেছেন,বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এ দেশে হিন্দু, মুসলমান, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান সবাই মিলে মিশে বসবাস করেন। আশ্রমে শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারীর ১২৯ তম তিরোধান উৎসব উপলক্ষে ৫০০ পুলিশ, র‌্যাব, এপিবিএন ও আনসার সদস্যরা দিবা-রাত্রি নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত আছে। আশ্রমের প্রবেশ পথে দুইটি আর্চওয়ে গেট স্থাপন করা হয়েছে। মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে নিরাপত্তা তল্লাশি সম্পূর্ণ করা হবে।

রোববার (২ জুন) দুপুরে সোনারগাঁয়ের বারোদিতে অবস্থিত লোকনাথ ব্রহ্মচারী আশ্রম পরিদর্শনকালে তিনি এ আশ্বাস প্রদান করেন। এ সময় নারায়নগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদও উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ডিআইজি হাবিবুর রহমানকে ফুলের শুভচ্ছা জানান স্থানীয় প্রশাসন।

ডিআইজি হাবিবুর রহমান আরো বলেন,  কোন সন্দেহজনক ব্যক্তি পিছনে বা কাঁধে ব্যাগ নিয়ে প্রবেশ করতে না পারে সে দিকে সকলকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। এছাড়া সাদা পোশাকে গোয়েন্দা নজরদারি রয়েছে। সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে আশ্রমে সার্বক্ষণিক নজরদারি করা হচ্ছে।

ডিআইজি আশ্রম কর্তৃপক্ষকে ভলেনটিয়ার (স্বেচ্ছাসেবী) সদস্য আশ্রমে রাখার জন্য অনুরোধ করেন। যাতে আগত অতিথিরা এবং বিদেশী নাগরিকরা কোন প্রকার অসুবিধার সম্মুখিন না হয়।

তিনি আরো বলেন, প্রধান শহর থেকে অত্র আশ্রমে আসার জন্য রাস্তায় ট্রাফিক পুলিশের ব্যবস্থা করা হয়েছে যাহাতে কোন প্রকার যানজটের সৃষ্টি না হয়। এছাড়াও কমিউনিটি পুলিশ অত্র আশ্রমে কাজ করছে বলে জানান ডিআইজি হাবিবুর রহমান।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খ অঞ্চল) খোরশেদ আলম, সোনারগাঁ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান, জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার কর্মকর্তা (ডিআইও-২) মো. সাজ্জাদ রোমন প্রমুখ।