মার্করামের উইকেট ইতিহাসের পাতায় অমরত্ব দিল সাকিবকে

ক্রীড়া ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ): সাকিব আল হাসান ম্যাচে নামবেন আর সেই ম্যাচে তিনি দুই-একটা রেকর্ড করবেন না, বিষয়টা ভাবাই যায় না। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেও একগাদা রেকর্ড লেখা হলো সাকিবের নামের পাশে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বল হাতে প্রথম উইকেট নেওয়ার পর সাকিব যে রেকর্ডটি করলেন সেটার জন্য কয়েক যুগ প্রার্থনা করেন একজন অলরাউন্ডার। দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসের ২০তম ওভারের চতুর্থ বলে এইডেন মার্করামকে ক্লিন বোল্ড করেন সাকিব।

মার্করামের এই উইকেটটি সাকিবকে ইতিহাসের পাতায় অমরত্ব প্রদান করল। প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানের উইকেটটি সাকিবের ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ২৫০তম উইকেট। ওয়ানডেতে পাঁচ হাজারের বেশি রানও রয়েছে তার। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সাকিব খেলছেন ক্যারিয়ারের ১৯৮তম ম্যাচ। সাকিবের চেয়ে কম ম্যাচ খেলে পাঁচ হাজার রান ও আড়াইশ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড ক্রিকেট বিশ্বে আর দ্বিতীয়টি নেই। এই উইকেটটি নিয়ে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা আরো বাড়িয়ে তুললেন সাকিব।

ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত মাত্র চারজন ক্রিকেটার পাঁচ হাজার রান ও আড়াইশ উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। সবচেয়ে দ্রুততম সময়ে এই রেকর্ড করেন পাকিস্তানের আবদুল রাজ্জাক (২৩৪ ম্যাচ), এরপরেই রয়েছেন আরেক পাকিস্তানি ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি। তিনি ২৭৩ ম্যাচ খেলে এই মাইলফলক স্পর্শ করেন। দক্ষিণ আফ্রিকার জ্যাক ক্যালিস ২৯৬ ম্যাচে ও শ্রীলংকার কিংবদন্তি অলরাউন্ডার সনৎ জয়াসুরিয়া ৩০৪ ম্যাচে এই মাইলফলক ছোঁয়ার কৃতিত্ব দেখান।

কেনিংটন ওভালে ব্যাট হাতে নেমে আরেকটি রেকর্ড করেন সাকিব। ব্যাট হাতে সাকিব আজ করেছেন ৭৫ রান। প্রথম ৫ রান করেই দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসাবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটে ১১ হাজার রান পূর্ণ করেন তিনি। বাংলাদেশের হয়ে সবোর্চ্চ রানের রেকর্ডটি তামিম ইকবালের। তিন ফরমেটে টাইগার ওপেনার করেছেন ১২ হাজার ৫৩৫ রান।

আজ আরও একটি রেকর্ড গড়েছেন সাকিব আল হাসান। অলরাউন্ডার হিসেবে র্যাং কিংয়ের শীর্ষে থেকে টানা তিনটি বিশ্বকাপে খেলছেন তিনি। ক্রিকেট বিশ্বে এই দুলর্ভ রেকর্ড আর কেউই গড়তে পারেননি।