আফগানিস্তানকে ৭ উইকেটে হারিয়ে শুভ সূচনা অস্ট্রেলিয়ার

ক্রীড়া ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ): আফগানিস্তানকে ৭ উইকেটে হারিয়ে শিরোপা ধরে রাখার মিশন শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়া। আফগানদের দেয়া ২০৮ রানের ছোট লক্ষ্য ওয়ার্নার-ফিঞ্চের ব্যাটিংয়ের কাছে আরও ছোটই হয়ে দাঁড়ায়!

ব্রিস্টলে শুরুতে ব্যাট করে ৩৮.২ ওভারে ২০৭ রানে গুটিয়ে যায় আফগানিস্তান। জবাব দিতে নেমে ৯১ বল আর ৭ উইকেট হাতে রেখে লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। ফিঞ্চ ৬৬ ও ওয়ার্নার অপরাজিত ৮৯ রানের ইনিংস খেলে জয় সহজ করেছেন।

দিনের প্রথম ম্যাচে নিউজিল্যান্ড ১০ উইকেটের জয় তুলে নিয়েছে। তাদের তাসমান পাড়ের প্রতিবেশী অস্ট্রেলিয়া লক্ষ্যটা পেল কিছু বেশি, কিউইদের মতো তাড়াহুড়োও করেনি অজিরা।

উদ্বোধনীতে ওয়ার্নারের সঙ্গে ৯৬ তোলার পর বিচ্ছিন্ন হন অ্যারন ফিঞ্চ। অধিনায়কের ৪৯ বলে ৬৬ রানের ইনিংস, ৬ চার ও ৪ ছক্কায় সাজানো।

ফিঞ্চের একটু তাড়া থাকলেও ওয়ার্নার থাকলের একেবারেই ধীরস্থির। এক বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরার পর জাতীয় দলের জার্সিতে প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ। একটু দেখেশুনেই এগোলেন। যদিও তার ব্যাটে রানের ঘাটতি ছিল না গত মাস তিনেকে, ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ সেটি দেখেছে।

সঙ্গী ফেরার পর উসমান খাজাকে (১৫) নিয়ে ৬২ রান যোগ করেন ওয়ার্নার। এই জুটিকালীন সময়ে খানিকটা হাত খুলতে থাকেন। পরে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা আরেক তারকা স্টিভেন স্মিথের (১৮) সঙ্গে আরও ৪৯ রান যোগ করে ম্যাচের শেষটা আনেন।

স্মিথ ফেরাটা অপরাজিত রাখতে পারেননি, একেবারে দ্বারপ্রান্তে যেয়ে সাজাঘরে হাঁটা দেন মুজিবের বলে জাজাইকে ক্যাচ দিয়ে।

তবে ওয়ার্নারকে শেষঅবধি ফেরাতে পারেননি আফগান বোলাররা। খুব কাছে যেয়ে সেঞ্চুরিও করা হয়নি এ বাঁহাতির। করবেনইবা কি করে, প্রতিপক্ষ যে খুব বেশি লক্ষ্যই দিতে পারেনি। জয়ে নোঙর ফেলে তাই ৮৯ রানে অপরাজিত ওয়ার্নার, ৮ চারে ১১৪ বলের ইনিংস।

ইনিংসের আগের ভাগটায় অজি বোলারদের সাফল্যের গল্প। পেসার কামিন্স ও স্পিনার জাম্পার দখলে ৩টি করে উইকেট। ২টি স্টোয়নিসের, এক উইকেট গেছে স্টার্কের ঝুলিতে।

অজি বোলারদের এমন দাপটের পরও আফগানরা দুইশ পেরিয়ে যায় নাজিবুল্লাহ জাদরান ৫১, রহমত শাহ ৪৩ ও অধিনায়ক গুলবাদিন নায়েবের ৩১ রানে। এছাড়া রশিদ খানের ২৭, হাসমতউল্লাহর ১৮ আর মুজিবের ১৩ রানও বেশ কাজে দিয়েছে দুশো পার করতে।