সর্ববৃহৎ ঈদ জামাতের প্রস্তুতি পরিদর্শনে শামীম ওসমান

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জ শহরের সর্ববৃহৎ ঈদ জামাতের প্রস্তুতি পরিদর্শন করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা ও সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনের এমপি একেএম শামীম ওসমান। এসময় তিনি কাজের অগ্রগতি ও যিনি ঈদের জামাতের ইমামসহ সার্বিক খোঁজ খবর নেন।

শনিবার(১ জুন)  বিকেল ৪টায় শহরের ইসদাইর এলাকায় কেন্দ্রীয় ঈদগাহ সংলগ্ন সামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্স মাঠে আয়োজিত ওই ঈদ জামাতের প্রস্তুতি পরিদর্শন করেন তিনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ সভাপতি ফারুক বিন ইউসুফ পাপ্পু, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়ক ও মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ফেরদাউস উর রহমান, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মুফতি দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।
মাওলানা ফেরদাউসউর রহমান বলেন, গণমাধ্যমে সর্ববৃহৎ ঈদ জামাতের প্রস্তুতি চলছে দেখে শনিবার বিকেলে সরেজমিনে পরিদর্শনে যাই। সেখানে ব্যাপক ও ভালো আয়োজন দেখে আমি নিজেই এমপি শামীম ওসমানেক মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানাই। তখন তিনি বলেন আপনারা থাকেন আমি আসছি। পরে তিনি ঢাকা থেকে সরাসরি কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ পরিদর্শনে আসনে। এসময় তিনি সার্বিক কাজের খোঁজখবর নেন। শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, সর্ববৃহৎ এ ঈদের জামাতের ইমামতি করবেন শহরের নূর মসজিদের হুজুর আব্দুস সালাম। তিনি বর্তমানে ওমরা হজ পালন করছেন। এ বিষয়ে এমপি শামীম ওসমান খোঁজ খবর নেন। এবং মোবাইলে হুজুরের সঙ্গে কথা বলেন। তখনই হুজুর জানায় রোববার ২ জুন হজ শেষ করে দেশে ফিরবেন।

প্রসঙ্গত ২০১৮ সালে বৃহৎ ঈদ জামাত আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছিলেন এমপি শামীম ওসমান। এর ধারাবাহিকতায় ২০১৯ সালে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়ে ব্যাপক আয়োজন চলছে। ইতোমধ্যে সামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্স মাঠে তাবুর মতো আধুনিক সরঞ্জাম দিয়ে ঘেরাও করা হয়েছে। করা হয়েছে অত্যাধুনিক প্রধান ফটকও। রয়েছে ইসলামি বাণী সহ ছোট বড় ফেস্টুন। যার আয়তন হবে ১ লাখ ২০ হাজার স্কয়ার ফুট। সেখানে এক সঙ্গে লক্ষাধিক মানুষ নামাজ আদায় করতে পারবে। আর এজন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে ৪৫ জন শ্রমিক।