সোনারগাঁওয়ে আম পাড়ায় বাধা দেওয়ায় যুবককে পিটিয়ে হত্যা

সোনারগাঁ(আজকের নারায়নগঞ্জ): সোনারগাঁওয়ে গাছ থেকে আম পাড়ায় বাধা দেওয়ায় রতন মিয়া (৩৫) নামে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

এ ঘটনায় পুলিশ আক্তার বানু (৫০) নামে এক নারীকে আটক করেছে।

বুধবার (২৯ মে) সকালে উপজেলার বাবরুকপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সোনারগাঁও থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল আজিজ মিয়া জানান, উপজেলার বাবরকপুর গ্রামের মোতালিবের ছেলে রতনের সঙ্গে একই গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে আরিফ ও প্রান্তের দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। সকালে রতনের বসত বাড়ি থেকে প্রতিপক্ষ আরিফ, প্রান্ত ও আক্তর বানু জোরপূর্বক গাছ থেকে আম পাড়তে গেলে রতন তাদের বাধা দেন। পরে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রতনের ওপর হামলা করেন। এ সময় রতন তার বসত ঘরে আশ্রয় নিলে প্রতিপক্ষরা ঘরে ঢুকে তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন। রতনের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে দ্রুত তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

রতনের মামা জাহাঙ্গীর হোসেন গনমাধ্যমকে বলেন, আমার ভাগিনা রতনের সঙ্গে তার প্রতিবেশী আরিফ ও প্রান্তর জমি নিয়ে বিরোধ ছিল। সকালে রতনের বসত বাড়ি থেকে আম পাড়তে গেলে রতন এতে বাধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিপক্ষরা তাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। রতন রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন। তিনি বিদেশ যাওয়ার জন্যও চেষ্টা করছিল।

খবর পেয়ে সোনারগাঁও থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আক্তার বানু নামে এক নারীকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে আরিফ ও প্রান্ত পলাতক বলেও জানান এসআই আজিজ।

এ ঘটনায় সোনারগাঁও থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।