আড়াইহাজারে একই পরিবারের পাঁচজনকে কুপিয়ে জখম

আড়াইহাজার(আজকের নারায়নগঞ্জ): আড়াইহাজারে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে একইপরিবারের পাঁচজনকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। আহতরা হলো জামান, ফজলুল হক, আমির হোসেন, শামীম ও আলমগীর। আহদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। পরে আলমগীরকে রাতেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শনিবার (২৫ মে) রাত ১০ টায় স্থানীয় ব্রাহ্মন্দী ইউপির ৭ নং ওয়ার্ডের লস্করদী এলাকায় হাসেম গংয়ের সঙ্গে জামান গংয়ের সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় রাতেই একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। রোববার (২৬ মে) সকালে আড়াইহাজার পৌরসভা বাজার থেকে শাকিল নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। সে ওই এলাকার হাসেমের ছেলে।

আহত আলমগীরের ভাই আনোয়ার জানান, প্রতিবেশী হাসেমের কাছে জামান দীর্ঘদিন ধরে ইরি ক্ষেতে সেচের বিল বাবদ ১ হাজার তিনশত টাকা পাওনা ছিলেন। উক্ত টাকা চাইতে গেলে হাসেমের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে কবির, হামিদউল্যাহ, হান্নান ও শাহিদুল্যাহ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রশ দা, চাপাতি লোহার রড, ও লাঠিসোটা নিয়ে তার ওপর হামলা চালায়। খবর পেয়ে পরিবারের অন্যসদস্যরা এগিয়ে গেলে তাদের ওপরও হামলা চালানো হয়। এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে একই পরিবারের পাঁচজনকে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে।

এদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে অভিযুক্ত হাসেম বলেন, তিনি বা তার কোনো লোকই কারোর ওপর হামলা করেনি।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করব। তিনি আরও বলেন, অভিযুক্ত এক ব্যক্তিকে এরই মধ্যে আটক করা হয়েছে।