কোন সিকোয়েন্স অপেক্ষা করছে না`গঞ্জবাসীর জন্যে ?

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক:শুধু নারায়নগঞ্জই নয়,পুরো দেশের মানুষেরই আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু এখন নারায়নগঞ্জ-৪ আসনের এমপি একেএম শামীম ওসমান ও জেলা পুলিশ সুপার আলোচিত হারুন অর রশীদ। তাদের উভয়কে এক অনুষ্ঠানে দেখা গেলে উপস্থিত সবারই নজর থাকে দুজনের প্রতি। কারন প্রতিবার দুজনকে এক অনুষ্ঠানে হাজিরার পরই কোন না কোন সিকোয়েন্স দেখতে পায় নারায়নগঞ্জবাসী।

এর আগে পুলিশ সুপারের বাংলোতে এসপি হারুনের দাওয়াতে উপস্থিত হয়েছিলেন এমপি শামীম ওসমান। তাতে এসপি দম্পতির মেহমান হিসাবে আপ্যায়িত হয়েছিলেন তিনি। পরের দিনই গ্রেফতার হয়েছিলেন ওসমান পরিবার সমর্থিত নাসিক কাউন্সিলর আবদুল করিম বাবু ওরফে ডিশবাবু,যিনি এখনো কারাভোগ করছেন।

এরও আগে ভাষা সৈনিক সাবেক এমপি একেএম সামসুজ্জোহার মৃত্যুবার্ষিকীতেও দুজনকে একান্ত আলাপনের ছবিতে দেখা গিয়েছিল। রাইফেল ক্লাবের জেলা প্রশাসন আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে  এমপি শামীম ওসমানকে শিক্ষাজীবনের হিরো হিসাবে অভিহিত করেছিলেন এসপি হারুন।

কিন্তু এর পরের সিকোয়েন্সও দেখেছেন নারায়নগঞ্জবাসী। পুলিশ সুপারের চেয়ারে বসে সামান্যতম সহানুভূতিও দেখাননি । আর এতেই বাংলার সিংহাম হিসাবেও উপাধি পেয়ে যান এসপি হারুন।

মঙ্গলবার(২১মে) ডিসি বাংলোতে ছিলো জেলা প্রশাসকের আয়োজনে ইফতার মাহফিল। ইফতার মাহফিলে জেলার বিভিন্ন স্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। সেখানেও সবাইকে ছাপিয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এবং নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমান।

অনুষ্ঠানে তাদের আলাপচারিতার একটি  ছবিতেও স্পষ্ট বুঝা যাচ্ছে তাদের আলাপচারিতা কতখানি আগ্রহ নিয়ে দেখছেন অনুষ্ঠানে আসা অতিথিরা। উপস্থিত সকলেই নজর তাদের দিকে। এখন অপেক্ষা পরের দিন কোন সিকোয়েন্স অপেক্ষা করছে নারায়নগঞ্জবাসীর জন্যে ?

তবে নারায়নগঞ্জবাসীর ধারনা এ ছবি যদি পজিটিভহয়,তাহলে নারায়নগঞ্জের অবকাঠামোগত উন্নয়নের  পাশাপাশি আইন-শৃঙ্খলা উন্নয়ন তথা নিরাপদ নারায়নগঞ্জ গঠনেও পজিটিভ পরিবেশ গড়ে উঠবে।