রূপগঞ্জে অতিরিক্ত চোলাই মদপানে ডকইয়ার্ড ব্যবসায়ীর মৃত্যু

রূপগঞ্জ(আজকের নারায়নগঞ্জ): রূপগঞ্জে অতিরিক্ত চোলাই মদপান করে আলমাছ (৪৫) নামে এক ডকইয়ার্ড ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে।

রোববার(১৯মে) মধ্যরাতে অতিরিক্ত চোলাই মদ পান করায় রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়। মৃত আলমাছ ঢাকার জয়পাড়া এলাকার আমজাদ খানের ছেলে।

সোমবার সকালে আমজাদ হোসেনের স্ত্রী তাছলিমা বেগম তার স্বামী আলমাছকে তার সহযোগীরা চোলাই মদ পান করিয়ে হত্যা করেছে বলে রূপগঞ্জ থানায় অভিযোগ করেছেন।

রূপগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুুদুল হাসান বলেন, রোববার বিকেলে ৩টার দিকে আলমাছ ও তার সহযোগী নাজমুল হক রাসেল, আবু তাহের, শাহীন মিলে রুহুল আমিনের কাছ থেকে একটি প্রাইভেটকার ভাড়া নেন। গাড়ি ভাড়া নিয়ে তারা ঢাকার উত্তরা, ৩শ ফিটসহ বিভিন্ন স্থানে ঘোরাঘুরি করে। ঘোরাঘুরি করার সময় তারা অতিরিক্তি চোলাই মদপান করে। রোববার রাত ১২টার দিকে আলমাছ ও তার সহযোগীরা ৩শ ফিট সড়কের নীলা মার্কেটের একটি হোটেলে গিয়ে বসে। আলমাছ সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়লে পুলিশ ও স্থানীয়রা মিলে তাকে রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে, স্ত্রী তাছলিমা বেগম তার স্বামী আলমাছকে তার সহযোগী হক রাসেল, আবু তাহের মিলে অতিরিক্ত মদপান করিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন। এ ঘটনায় নাজমুল হক রাসেলকে গ্রেফতার করা হলে আরও দুই সহযোগী আবু তাহের ও শাহিন পালিয়ে যায়। মৃত ব্যবসায়ীর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে প্রাইভেটকার চালক রুহুল আমিন ভুইয়া বলেন, আমি তাদের চোলাই মদ খেতে নিষেধ করেছিলাম। আলমাছ অসুস্থ হয়ে পড়লে আমি পুলিশকে খবর দিয়ে তাদের সহযোগিতা করেছি।