ফতুল্লায় গনপিটুনীতে ১ ছিনতাইকারী নিহত, আহত ১

ফতুল্লা(আজকের নারায়নগঞ্জ): ফতুল্লায় গণপিটুনির শিকার হয়ে এক ছিনতাইকারী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও এক ছিনতাইকারী। নিহতের নাম সজিব (২৮)। শনিবার (১৮ মে) ভোরে জামতলা ঈদগাহ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত ছিনতাইকারী মামুনে (৩২)কে  আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিচয় পাওয়া না গেলেও আহত মামুন শহরের গলাচিপার নাদিমের বাড়ির ভাড়াটিয়া কমর আলীর ছেলে  বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ফতুল্লা থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা কমার্স কলেজের অর্নাসের ছাত্র সায়হাম আহম্মেদ বাপ্পী গাবতলী এলাকার বাসা থেকে শনিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে বের হয়ে রিকশাযোগে কলেজের উদ্দেশ্যে  রওনা হন। রিকশাটি ঈদগাহ এলাকায় এলে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা ৩ ছিনতাইকারী তার গতিরোধ করে। পরে দেশীয় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ছিনতাইয়ের চেষ্টা করলে তিনি তাদের ধাক্কা দিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। একপর্যায়ে ছিনতাইকারীরা তাকে আটকে মারধর করলে তিনি চিৎকার শুরু করেন।

চীৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তিন ছিনতাইকারীকে আটক করে তাদের গণপিটুনি দেয়। এর মধ্যে এক ছিনতাইকারী কৌশলে পালিয়ে যায়। তবে অন্য দুজনকে বেঁধে রেখে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে আহতাবস্থায় দু‌‘ছিনতাইকারীকে উদ্ধার করে খানপুর এলাকায়  হাসপাতালে নিয়ে যায়।

নারায়নগঞ্জ ৩শ শয্যা হাসপাতালের জরুরী বিভাগের ডাক্তার শাহাদাত হোসেন জানান, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ২ যুবককে হাসাপাতালে আনা হয়। এর মধ্যে একজন আগেই মারা গেছে। অন্যজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর জন্য বলা হয়েছে।

ফতুল্লা থানার এসআই মামুন মিয়া জানান, ছিনতাইকারী ২ জনের নাম ছাড়া বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি। তাদের পুরো পরিচয় শনাক্ত এবং বাকী ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।