যশোরে প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্তঃ ২ পাইলট নিহত

আজকের নারায়নগঞ্জঃ   যশোরে বিমান বাহিনীর প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় দুই পাইলটই নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।

নিহতরা হলেন- স্কোয়াড্রন লিডার মো. সিরাজুল ইসলাম ও স্কোয়াড্রন লিডার এনায়েত কবির পলাশ। বিমানটি চালাচ্ছিলেন তারা দুইজন।

আইএসপিআর জানায়, রোববার রাতে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর কে-৮ ডব্লিও নামের একটি বিমান যশোর সদর উপজেলার বুকভরা বাওড়ের মধ্যে বিধ্বস্ত হয়। বিমানটি যশোরের মতিউর রহমান বিমান ঘাঁটি থেকে রাত্রীকালীন প্রশিক্ষণের উদ্দেশ্যে উড্ডয়ন করে বলে জানায় তারা।

এখনো উদ্ধারকাজ চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে আইএসপিআর। সেইসাথে এ ঘটনায় একটি উচ্চতর তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

যশোর বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক আলমগীর পাঠান বলেন, ‘রোববার রাত ৯টা ২০ মিনিটে যশোরের মতিউর রহমান বিমান ঘাঁটি থেকে একটি প্রশিক্ষণ বিমান উড্ডয়ন করে। এর কিছুক্ষণ পর সেটি যশোর সদর উপজেলার ফরিদপুর গ্রামের বুকভরা বাওড়ের মধ্যে আছড়ে পড়ে যায়। বিমানটিতে দুইজন পাইলট ছিলেন।’

বুকভরা বাওড় সংলগ্ন চান্দুটিয়া বাজারের ব্যবসায়ী শ্যামল কুমার সিংহ মোবাইলে জানান, রোববার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তিনি বাজারে ছিলেন। এ সময় প্রচণ্ড শব্দ শুনে তারা অনেকেই আরিচপুর বাজারসংলগ্ন বুকভরা বাওড়ে ছুটে যান। দূর থেকে তারা দেখতে পান একটি বিমানের কিছু অংশ বাওড় পাড় থেকে দুই-তিনশ’ মিটার দূরে পানিতে ভাসছে। তাদের অনেকেই নৌকায় করে বিমানটির কাছে যান। কিন্তু কোনো মানুষের সন্ধান তারা পাননি। তবে গোটা এলাকা পেট্রোলজাতীয় জ্বালানির গন্ধে ভরে উঠেছে। প্রচণ্ড বৃষ্টি আর অন্ধকারের কারণে কোনোকিছু ঠিকভাবে দেখাও যাচ্ছে না।

দেয়াড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান বলেন, ‘স্থানীয় বুকভরা বাওড়ে একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে।’