নওগাঁর মান্দায় কেল্লার উপদ্রপে অতিষ্ট একটি পরিবার

 

মাহবুবুজ্জামান সেতু, নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর মান্দায় কেল্লার উপদ্রুপে অতিষ্ট হয়ে পড়েছেন একটি পরিবার। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মান্দা ইউপির কালিকাপুর এলাকার মৃত আলহাজ ময়েজ উদ্দিন মন্ডলের ছেলে ময়নুল ইসলাম জুয়েলের বাড়িতে।

কেল্লার অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে মেসার্স মিম এন্টারপ্রাইজ এর মালিক বিশিষ্ট বালু ব্যাবসায়ী সোমবার সকালে কৃষি অফিসে শরনাপন্ন হয়েছেন। তিনি কেল্লার অত্যাচার থেকে রেহাই পেতে বিভিন্ন গুণিজন ও এলাকাবাসীর কাছে পরামর্শ করেও কোন ফল পাচ্ছেননা। ময়নুল ইসলাম জুয়েল জানান প্রতিবছরই আমাদের এই বাড়িটিতে কেল্লার উপদ্রুপ লক্ষ্য করা যায়। বিশেষ করে এই সময়টাতেই এগুলোর আনাগোনা বাড়ে। গত কয়েকদিন আগে ঘূর্ণিঝড় ফনির প্রভাবে ঝড় বৃষ্টির পর থেকে কেল্লার উপদ্রুপ আরোও বেড়ে গেছে।

নিরুপায় হয়ে তিনি বাড়ি ত্যাগ করে অন্যত্র যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যকর অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

সরজমিনে গেলে তার বাসার বাহিরে ভিতরে এমনকি বেড রুম, ডাইনিং রুম, ড্রয়িং রুম, বাথরুম ও কিচেন রুমেও অসংখ্য কেল্লার আনাগোনা দেখা গেছে।

এব্যাপারে কথা বললে বাড়ির মালিক ময়নুল ইসলাম জুয়েল ও এর এর স্ত্রী নাসরিন আক্তার রোজিনা বলেন, এই কেল্লার অত্যাচারে ও ভয়ে আমাদের কয়েক রাত থেকে ঘুম হচ্ছেনা। এমনকি আমার একটি মেয়ে মিম কেল্লার ভয়ে বাড়ি ছেড়ে নানির বাড়ি রাজশাহীতে পাড়ি জমিয়েছে। আমরাও কিছুদিনের জন্য বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এএফএম গোলাম ফারুক হোসেন এবং উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান জানান, এব্যাপারে ভুক্তভোগী ময়নুল কেল্লার উপদ্রুপ থেকে রক্ষা পেতে আমার কাছে আসলে তাকে প্রাথমিকভাবে তাসলা নামের একটি ঔষুধ প্রয়োগ করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়।