‘দাড়ি-টুপিওয়ালা’ সেই নেতাই শ্রমিকদের হ্যামিলনের বাশিওয়ালা ?

ফাইল ছবি

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক: দেখেতো তাই মনে হলো পহেলা মে উপলক্ষে আয়োজিত চাষাঢার শ্রমিক সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন মুখে লম্বা দাড়ি আর মাথায় টুপি আর গায়ে লম্বা পাঞ্জাবী। বিশালদেহী শ্রমিকলীগ নেতা তিনি তো কাউসার আহমাদ পলাশই।

মালিকপক্ষ যাকে বিশৃঙ্খলাকারী হিসাবে অভিহিত করেন সেই দাড়ি-টুপিওয়ালা নেতাই আজ শ্রমিকদের বন্ধু তাই নয়,প্রশাসনের দৃষ্টিতেও তিনি এখন শ্রমিকদের হ্যামিলনের বাশিওয়ালা।

আর সেই সমাবেশে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রেখেছেন জেলা পুলিশ সুপার আলোচিত হারুন অর রশীদ। যিনি নারায়নগঞ্জ জেলা পুলিশে যোগ দিয়েই হুঙ্কার দিয়েছিলেন,দাড়ি-টুপি লাগিয়ে চাঁদাবাজি চলবে না। হয় উনি থাকবে নয়তো আমি থাকবো। আরও একটা শব্দও মুখ থেকে বের হয়েছিল, এখন আর সে দেশে নেই।

২৯ এপ্রিল ব্যবসায়ীদের সভায় হুশিয়ারী দিয়েছেন নারায়নগঞ্জ-৫ আসনের এমপি বিকেএমইএ সভাপতি সেলিম ওসমান। তিনি বলেছেন,দাড়ি-টুপিওয়ালাদের আর গার্মেন্টস কারখানায় বিশৃংখলা করতে দেয়া হবে না।

এর আগেও সমালোচিত সাবেক এমপি নায়িকা কবরীকে দাড়ি-টুপিওয়ালা শ্রমিক নেতাকে নিয়ে কটাক্ষ করেছেন। আরও অনেকেই হঙ্কার দিয়েছেন,সমালোচনা করেছেন।

মালিকপক্ষ যাকে বিশৃঙ্খলাকারী হিসাবে অভিহিত করেন সেই দাড়ি-টুপিওয়ালা নেতাই আজ প্রশাসনের দৃষ্টিতে শ্রমিকদের হ্যামিলনের বাশিওয়ালা। তবে কি প্রশাসনকে ভূল ম্যাসেজ দিয়ে শ্রমিক বন্ধু পলাশকে সাইজ করার মিশনে মেতে উঠেছেন মালিকপক্ষ। এমন প্রশ্ন দেখা দিয়েছে শ্রমিক-জনতাসহ বিভিন্নস্তরের মনে।

বুধবার (১ মে) সকালে মহান মে দিবস উপলক্ষে চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এক আলোচনা সভায় কাউসার আহমেদ পলাশকে শ্রমিকের হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা বলে সম্বোধন করেছেন জেলা ইন্ডাষ্ট্রিয়াল পুলিশ সুপার মো. জাহিদুল ইসলাম।

শ্রমিকদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, পুলিশ শ্রমিকদের সাথে আছে। ন্যায্য দাবি আদায়ের জন্য অবশ্যই আন্দোলন করবেন। কিন্তু সে আন্দোলন নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন হতে হবে। ভাঙচুর-জ্বালাও-পোড়াও করে আন্দোলন করলে রাষ্ট্রের ক্ষতি আর রাষ্ট্রের ক্ষতি মানে আপনার নিজেরও ক্ষতি।

বিভাগীয় শ্রম অধিদপ্তরের পরিচলিক ও রেজিষ্টার অব ট্রেড ইউনিয়ন মো. খোরশেদুল হক ভূঞার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. সেলিম রেজা, জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ, ইন্ডাষ্ট্রিয়াল পুলিশ সুপার মো. জাহিদুল ইসলাম, জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাউসার আহমেদ পলাশ, এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. হাতেম, চেম্বার অব কমার্সের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও বিকেএমইএর পরিচালক মো. মোরশেদ সারোয়ার প্রমুখ।