পানির দাবীতে বন্দরে সড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ

সংবাদদাতা,বন্দরঃ বন্দরে ওয়াসার পানির দাবিতে এলাকাবাসী সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে। শুক্রবার উপজেলার দাসেরগাঁও, চৌরাপাড়া, উত্তর লক্ষখোলা, দক্ষিন লক্ষনখোলাসহ বেশ কয়েকটি এলাকার মানুষ একত্রিত হয়ে ঢাকা-মদনগঞ্জ-মদনপুর সড়ক অবরোধ করে এ বিক্ষোভ করে।

বেলা এগারোটা থেকে দুপুর বারোটা পর্যন্ত এক ঘন্টা সড়ক অবরোধ করে রাখে তারা। এসময় রাস্তার দুইপাশে যানজটের সৃষ্টি হয়।

এ দিকে পানির দাবিতে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধের ঘটনাটি নারায়ণগঞ্জ- ৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানকে অবগত করা হয়। খবর পেয়ে তিনি তাৎক্ষনিকভাবে বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকুল, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আবুল জাহের ও বন্দর থানার ওসি শাহীন মন্ডলকে ঘটনাস্থলে পাঠান।

তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে সেলিম ওসমান এমপির সঙ্গে মোবাইল ফোনে এলাকাবাসীর কথা বলার ব্যবস্থা করেন। সেলিম ওসমান এমপি মোবাইলে দ্রুত পানি সংকট নিরসনের আশ্বাসসহ শনিবার বিকেলে এলাকাবাসীর সঙ্গে সংকট নিয়ে সরাসরি কথা বলার ঘোষণা দিলে মহাসড়ক অবরোধ তুলে নেন এলাকাবাসী।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, গত এক মাস ধরে উত্তর লক্ষনখোলা এলাকার ওয়াসার পানির পাম্প বিকল হয়ে পড়ে থাকলেও কর্তৃপক্ষ তা মেরামতের উদ্যোগ নিচ্ছে না। এর কারনে পানির অভাবে সিটি কর্পোরেশনের দুইটি ওয়ার্ডের প্রায় ত্রিশ হাজার মানুষকে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

পানির অভাবে গোসল, থালাবাসন ধোয়া মোছাসহ নিত্য প্রয়োজনীয় কাজে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। মসজিদের মুসুল্লিরা পর্যন্ত পানির অভাবে ইবাদত বন্দেগি করতে পারছেন না।

এ ব্যাপারে সিটি করপোরেশনের মেয়র এবং স্থানীয় সংসদ সদস্যকে জানানো হলেও তারা কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় এলাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৪ ও ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের ওয়াসার পানি সরবরাহ করা হয় উত্তর লক্ষণখোলা ওয়াসার পাম্প হাউজ থেকে। প্রায় এক মাস ধরে পানির পাম্পটি বিকল হয়ে পড়ে আছে। কিন্তু ওয়াসা কৃর্তপক্ষ গত তিন দিন আগে মেরামত কাজ শুরু করে।

সম্পর্ণ মেরামত কাজ শেষ করতে আরো প্রায় ১৫-থেকে ২০ দিন সময় লাগবে বলে ওয়াসার একটি সূত্র জানিয়েছে। ওবে মেরামত কাজের এই সময়ে ওয়াসার পক্ষ থেকে বিকল্প পানি সরবরাহ করার কথা থাকলেও যা পরিমানে সরবরাহ হচ্ছে তা চাহিদার তুলনায় খুবই অপ্রতুল।

গত ছয় মাস আগেও এই এলাকায় ওয়াসার পাম্প বিকল হয়ে পড়লে এলাকাবাসী প্রায় তিন মাস পানির সংকটে পড়ে চরম দূর্ভোগের শিকার হন। পানির দাবীতে এলাকাবাসী টানা দুই মাস বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করে।

এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলে স্থানীয় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান ওয়াসার সাথে কথা বলে তড়িৎ ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। পরে ওয়াসা কর্তৃপক্ষ পাম্পগুলো মেরামত করে সচল করলে পানি সংকট সমস্যার সমাধান হয়।