সুন্দর আলীর বিরুদ্ধে তথ্য গোপনের অভিযোগ পারভীনের

আজকের নারায়নগঞ্জঃ     অভিযোগ উঠেছে আড়াইহাজার পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সুন্দর আলীর ‘হলফনামা’ নিয়ে। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বিএনপির পারভীন আক্তার এ ধরনের অভিযোগ তুললেও সুন্দর আলীর দাবি, ‘নির্বাচন কমিশনের বিধি মেনে তিনি ‘হলফনামা’ দিয়েছেন।’ অন্যদিকে রিটার্নিং অফিসার বলেছেন, ‘পারভীন আক্তারের অভিযোগ ভিত্তিহীন।’

এ নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা। তথ্য গোপন রেখে ‘হলফনামা’ প্রদান করায় প্রশ্ন উঠেছে তাঁর মনোনয়নের বৈধতা নিয়ে। একই সাথে অভিযোগ রয়েছে আথিক লেনদেনের কারণে রিটার্নিং অফিসার ফয়সাল কাদের সুন্দর আলীর অবৈধ মনোনয়নটি বৈধ হিসেবে ঘোষণা করেছেন।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বিএনপির পারভীন আক্তারের অভিযোগ,   ২১ ও ২৬ জুন জমা দেয়া ‘হলফনামায়’ সুন্দর আলী তাঁর প্রকৃত সম্পদের হিসেবে গোপন করেছেন। সেখানে এর বাইরেও আরও বেশ কিছু তথ্যগোপন করেন তিনি। বিশেষ করে বিভিন্ন থানায় তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার বিবরণিও গোপন করেছেন। এমন অভিযোগ তুলে বিআরডিবির সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন অানু বলেছেন, “সুন্দর আলীর গোপন করা সব তথ্য আমাদের কাছে রয়েছে।”

তাদের দাবী অনুযায়ী, সুন্দর আলীর দেয়া ‘হলফনামায়’ যেসব সম্পদের কথা উল্লেখ করেছেন এর বাইরেও তাঁর মালিকানাধীন আরও অনেক সম্পদ রয়েছে। এরমধ্যে আড়াইহাজার পৌরসভা বাজারে তাঁর মালিকাধীন (সাবেক দাগনং -৪১১, আরএস ৪৯৬ দাগে) একটি দোতলা বিল্ডিং, আড়াইহাজার থানার মোড়ে বিএনপির কার্যালয়ের দক্ষিণাংশে মের্সাস রাহাদ ইলেকক্ট্রনিক্স ষ্টোর (এসএ দাগ নং-২২ও আর এস দাগ নং-৪২৩)।

এছাড়াও সুন্দর আলীর মালিকাধীন আড়াইহাজার ডাকবাংলার সংলগ্ন একটি টিনসেট দোকান, (এস এ দাগ নং-৪২১ আরএস দাগ নং- ৪৯৪)। এর বাইরেও বেশ কিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

সূত্র বলছে, এসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামে সুন্দর আলী নিয়মিত অর্থ আয় করা সহ পৌরসভায় টেক্স দিয়ে যাচ্ছেন। অথচ তিনি তাঁর হিসাব বিবরণিতে এসবের একটিও উল্লেখ্য করেনি। সে হিসেবে নির্বাচনী আইন মোতাবেক ‘হলফনামায়’ তথ্য গোপনের অভিযোগে তাঁর মনোনয়নটি অবৈধ ঘোষণা করার কথা। কিন্তু সে দিকে যায়নি রিটার্নিং অফিসার।

বিএনপির মেয়র প্রার্থী পারভীন আক্তার বলেন, “যেহেতু আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সুন্দর আলী দুই দফায় প্রদান করা হফলনামায় সম্পদের তথ্যে শুভকংরের ফাঁকি দিয়েছেন। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আড়াইহাজার পৌরসভা রিটার্নিং অফিসার ফয়সাল কাদেরকে অবহিত করার উদ্দেশ্যে পৌরসভা কর্তৃপক্ষের কাছে সুন্দর আলীর প্রত্যায়ন পত্র চাওয়া হয়। কিন্তু পৌরকর্তৃপক্ষ তা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন।”

রিটার্নিং অফিসার ফয়সাল আরেফিন বলেন, “কোনো প্রার্থী চাইলেই তাঁকে আরেক প্রার্থীর ‘হলফনামা’ প্রদান করার নিয়ম নেই। এ কারণে আবেদনকারীকে আমরা হলফনামা দিইনি। তিনি যদি মনে করেন সুন্দর আলীর মনোয়নপত্র নিয়ে কোনো সমস্যা আছে। তাঁর যদি আপত্তি থাকে, এ ব্যাপারে তিনি জেলা প্রশাসকের বরাবর আপিল করতে পারবেন।”