গোড়ালিতে তাবিজ নিয়ে খেলেছিলেন মেসি

 

ক্রীড়া ডেস্কঃ প্রথম দুই ম্যাচে নেই জয়ের দেখা। চেনা ছন্দে নেই দলের সেরা তারকা। জেগেছিল গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেওয়ার শঙ্কা। অবশ্য শেষ পর্যন্ত ঘুরে দাঁড়িয়েছে আর্জেন্টিনা। গ্রুপ পর্বে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে পরাজয়ের বৃত্ত ভেঙে বেড়িয়েছে দলটি। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে স্বস্তির জয় ও আইসল্যান্ডের পরাজয়ে ভর করে শেষ ষোলোর টিকেটও কেটেছে আলবিসেলেস্তেরা।

নাইজেরিয়া বিপক্ষে বাঁচা-মরার ম্যাচেই পুরনো ছন্দে ফিরেছেন আর্জেন্টিনার প্রাণভোমরা লিওনেল মেসি। স্বরূপে ফিরে দলকেও টেনে তুলেছেন খাদের কিনারা থেকে। দলের প্রথম গোলটি আসে তার পা থেকেই। অবশ্য ধারণা করা হচ্ছে, মেসির এমন পারফরম্যান্সের পেছনে রয়েছে একটি তাবিজের ভূমিকা! কারণ নাইজেরিয়ার বিপক্ষে পায়ে তাবিজ বেঁধে খেলেছেন তিনি।

ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে হারের পর ঝুলে যায় আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ ভাগ্য। এমন সময় মেসিদের সংস্পর্শে আসেন আর্জেন্টিনার তেলেফে টিভির উপস্থাপক রামা পানতোরোত্তো। মেসির হাতে একটা অ্যামিউলেত (তাবিজ) তুলে দেন তিনি, যেটি মেসির জন্য পাঠিয়েছিলেন পানতোরাত্তোর মা মারিয়া কসমিকা।

পানতোরাত্তোর মায়ের দেওয়া লাল রঙের সেই অ্যামিউলেত গোড়ালিতে বেঁধে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামেন মেসি। আর্জেন্টাইনদের বিশ্বাস, দুর্ভাগ্য কাটাতে এই অ্যামিউলেত ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তাদের প্রায় সবাই বিশ্বাস করেন, এটার এক আশ্চর্য জাদুকরী ক্ষমতা রয়েছে।

ম্যাচ শেষে মেসি যখন সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন, সেখানে উপস্থিত ছিলেন পানতোরোত্তোও। তখন মেসির কাছে অ্যামিউলেতের কথা জানতে চাওয়া হলে তিনি সেটা মোজার ভেতর থেকে বের করে দেখান। সঙ্গে সঙ্গে আনন্দে উদ্বেলিত হয়ে পড়েন এই আর্জেন্টাইন সাংবাদিক। তার বিশ্বাস, লাল রঙের অ্যামিউলেতের কল্যাণেই মেসি ও আর্জেন্টিনার ভাগ্য ফিরেছে!

সূত্র: টুইটার