সূষ্ঠ সমাধান না হলে না‘গঞ্জ শহরে আন্দোলনের তুফান বইবে — পলাশ

 

আজকের নারায়নগঞ্জঃ  নির্যাতিত গার্মেন্টস শ্রমিকদের সূষ্ঠ বিচার না পায়,তাহলে শনিবারে নারায়নগঞ্জ শহরে আন্দোলনের তুফান বয়ে যাবে। হাসপাতালের বেডে শুয়ে কাতরাচ্ছে শ্রমিকেরা। মালিকপক্ষের সন্ত্রাসীরা পেটে লাথি মেরে শ্রমিকের গর্ভের সন্তান নষ্ট করে দিয়েছে এ ক্ষতিপূরন কিভাবে শোধ করবেন সেটা উনারাই ভাল জানেন। আমরা শুধু বলতে চাই,শ্রমিক বান্ধব শেখ হাসিনার সরকারের দেশে শ্রমিক নির্যাতন বরদাশত করা হবে না।বৃহস্পতিবার পর্যন্ত অপেক্ষা করবো।  বর্বর নির্যাতনের সূষ্ঠ সমাধান না হলে শ্রমিক সমাজ রাজপথে গর্জে উঠবে এটাই হচ্ছে শেষ কথা।

২৭ জুন দুপুরে ফতুল্লার জেনালের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাকুরা গার্মেন্টসের নির্যাতিত নারী-পুরুষ শ্রমিকদের খবর নিতে গিয়ে এভাবেই মনোভাব ব্যক্ত করেন জাতীয় শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যান বিষয়ক সম্পাদক কাউসার আহমেদ পলাশ।
এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় শ্রমিকলীগ নারায়নগঞ্জ জেলা শাখার সিনিয়র সহসভাপতি এড. আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির,্ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্ট ওয়ার্কারস নারায়নগঞ্জ জেলা শাখার সহভাপতি শাহাদাত হোসেন সেন্টু,সহসভাপতি রফিকুল ইসলামসহ নির্যাতিত শ্রমিকদের আতœীয়স্বজনেরা।
এ সময় পলাশ আরো বলেন,ঘটনার দিন ফতুল্লায় এসে বিকেএমইএ সভাপতি সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলে গেছেন,বৃহস্পতিবারের মধ্যে তদন্ত করে দায়ী ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। অথচ এর আগেই মালিকপক্ষের অভিযোগগুলো নথিভুক্ত করে শ্রমিকদের হয়রানির চেষ্টা করা হচেছ। তবে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদেরকে আমি ধন্যবাদ জানাই উনি যথাসময়ে গিয়ে নির্যাতিনের শিকার শ্রমিকদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠাতে সহযোগিতা করেছেন। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত শ্রমিকসমাজ অপেক্ষা করবে।