বন্দরে মহিলা কলেজের ছাত্রী অপহরন মামলায় গ্রেপ্তার-১

 

স্ংবাদদাতা,বন্দরঃ নারায়ণগঞ্জ মহিলা কলেজের এইচএসসি ২য় বর্ষের ছাত্রী লিথি আক্তার (১৮) অপহরন মামলার ৪নং আসামী ঝুম্পা আক্তার (২৮)কে গ্রেপ্তার করেছে বন্দর থানা পুলিশ। মঙ্গলবার বিকেলে বন্দর থানার ২৩নং ওয়ার্ডস্থ স্বল্পের চক এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। যার মামলা নং- ৬২(৬)১৮।
গ্রেপ্তারকৃত ঝুম্পা আক্তার বন্দর স্বল্পের চক এলাকার সিরাজুল ইসলামের মেয়ে বলে জানা গেছে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, বন্দর থানার ২৬/১ উইলসন রোড আমিন আবাসিক এলাকার ব্যবসায়ী বাবুল সাউদের মেয়ে মহিলা কলেজের ছাত্রী লিথি আক্তারকে র্দীঘ দিন ধরে কলেজে যাওয়া ও আসার পথে প্রেমের প্রস্তাবসহ বিভিন্ন ভাবে বিরক্ত ও প্রলোভন দেখিয়ে আসচ্ছে বন্দর স্বল্পের চক এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে নাদিমসহ কয়েকজন।
এর ধারাবাহিকতায় গত ২৩ জুন বিকাল পৌনে ৪টায় শারীরিক অসুস্থতা কারনে কলেজ ছাত্রী লিথি আক্তারের পিতা বাবুল সাউদ ও তার স্ত্রী ঢাকা কাঠাল বাগান পদ্মা মেডিকেল হাসপাতালে উদ্দেশ্যে বাড়ী থেকে বের হয়। ওই সুযোগে ওই দিন বিকেল ৪টায় আমিন আবাসিক এলাকার কবির মিয়ার ভাড়াটিয়া বাড়ীতে প্রবেশ করে নাদিম তার পিতা সিরাজুল ও তার ২ মেয়ে টুম্পা ও ঝুম্পা মিলে কলেজ ছাত্রী লিথি আক্তারকে বিভিন্ন রকমের প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলিয়ে অপহরণ করে বাড়ী থাকা নগদ ৭ লাখ টাকা ও ১টি নেকলেস, ১ জোড়া হাতের বালা, ১ জোড়া চুরি, ১টি কন্ঠ হারসহ ২০ ভরি স্বার্ণালংকার নিয়ে পালিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে বন্দর থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করলে বন্দর থানার উপ-পরিদর্শক আনোয়ার হুসাইনসহ সঙ্গীয়র্ফোস বিকেলে অপহরণ মামলার ৪নং আসামী ঝুম্পা আক্তারকে গ্রেপ্তার করে।

এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত গ্রেপ্তারকৃত ঝুম্পা আক্তার বন্দর থানা হাজতে আটক আছে বলে থানা সূত্রে জানা গেছে।