বন্দরে স্বামীর গলায় ছোরা ঠেকিয়ে স্ত্রীকে গণধর্ষন

 

সংবাদদাতা,বন্দরঃ স্বামীর গলায় ছোরা ঠেকিয়ে স্ত্রী(১৭)কে গণধর্ষন করেছে ৫ লম্পট।এক জনকে আটক করা হলেও অন্যরা পলাতক রয়েছে।২৪শে জুন রবিবার রাতে নারায়ণগঞ্জ বন্দর সাবদী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।ধর্ষনের শিকার গৃহবধূ বাদী হয়ে  সোমবার সকালে থানায় ৫ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেছেন।

এজাহার বিবরণী ও ঘটনার স্বীকার গৃহবধূর স্বামী জানায়, রবিবার বিকেলে স্বল্পের চক গ্রামের গৃহবধূ তার স্বামীর সাথে সাবদী এলাকায় বেড়াতে যায়।রাত ৮টার দিকে বাড়ী ফেরার পথে সাবদী ব্রীজ পাড় হওয়া মাত্রই অটোবাইক যোগে ৫ লম্পট এসে তাদের দুজনকে গাড়ীতে তুলে  নির্জন স্থানে নিয়ে যায়।

এক পর্যায় স্বামীর গলায় ছোরা ঠেকিয়ে তার স্ত্রীকে সেলসারদি বিলের এক বাগানবাড়ীতে নিয়ে পালাক্রমে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। রাত ১২টার দিকে হটাৎ ডাক চিৎকার শুনে এলাকাবাসী দৌড়ে এসে নলুয়া পাড়ার তুহিন নামে এক লম্পটকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।সেলসারদি ও সাবদী এলাকার অটো চালক আমজাদ,কাদির,বাপ্পি,রায়হান পালিয়ে যায়।

বন্দর থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) শাহিন মন্ডল জানান, “এ ঘটনায় একজন আটক আছে। অন্যদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।”

মামলা তদন্তকারী অফিসার এসআই হামিদুলও ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ।