দায়িত্ব নিয়েছেন নয়া সেনাপ্রধান লেঃ জেনারেল আজিজ আহমেদ

আজকের নারায়নগঞ্জঃ সেনাবাহিনীর প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ আহমেদ। আজ সোমবার ঢাকা সেনানিবাসে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায়ী সেনাপ্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হকের কাছ থেকে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন নতুন সেনাপ্রধান।

এর আগে বিদায়ী সেনাপ্রধান শিখা অনির্বাণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মুক্তিযুদ্ধে শহীদ সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানান। এরপর সেনাকুঞ্জে তাঁকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়।

পরে সেনানিবাসে আয়োজিত সামরিক রীতি অনুযায়ী বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বিদায় জানানো হয় আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হককে।

নবনিযুক্ত সেনাপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ আহমেদ ১৯৬১ সালের ১ জানুয়ারি চাঁদপুর জেলার এক মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা ছিলেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একজন কর্মকর্তা। আজিজ আহমেদ ১৯৮৩ সালের ১০ জুন বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমি থেকে অষ্টম দীর্ঘমেয়াদি কোর্সের সঙ্গে আর্টিলারি কোরে কমিশন লাভ করেন। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্রাজুয়েশন ডিগ্রি অর্জনের পাশাপাশি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার ইন ডিফেন্স স্টাডিজ, এমএসসি (কারিগরি) এবং আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ থেকে মাস্টার্স ইন বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এক্সিকিউটিভ) ডিগ্রি অর্জন করেন।

বর্তমানে আজিজ আহমেদ বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) অধীনে পিএইচডি ডিগ্রির জন্য গবেষণা করছেন। তিনি চট্টগ্রামের হালিশহরের আর্টিলারি সেন্টার অ্যান্ড স্কুল থেকে গানারি স্টাফ কোর্স, রাজধানীর মিরপুরে ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ থেকে স্টাফ কোর্স এবং ভারত থেকে লং গানারি স্টাফ কোর্স সম্পন্ন করেছেন। বর্ণাঢ্য চাকরি জীবনে তিনি ৩৩ পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক, জেনারেল অফিসার কমান্ডিং আর্মি ট্রেনিং অ্যান্ড ডকট্রিন কমান্ড ও সেনাসদরের কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এ ছাড়া তিনি একটি আর্টিলারি রেজিমেন্টের অধিনায়ক, দুটি আর্টিলারি ব্রিগেডের ব্রিগেড কমান্ডার, একটি বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক, একটি বিজিবি সেক্টরের কমান্ডার, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অবজারভার হিসেবে ইরাক-কুয়েত এবং সুদানে ফোর্স কমান্ডারের মিলিটারি উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন।

পার্বত্য চট্টগ্রামে কাউন্টার ইন্সারজেন্সি অপারেশনের অংশ হিসেবে লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ আহমেদ দীর্ঘ দুই বছর ২৪ আর্টিলারি ব্রিগেডের অপারেশনাল স্টাফ অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি দীর্ঘ সময় আর্টিলারি সেন্টার অ্যান্ড স্কুল, হালিশহর এবং স্কুল অব মিলিটারি ইন্টিলিজেন্সে একজন সফল প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বিজিবি সেক্টর কমান্ডার হিসেবে অধীনস্ত সেক্টরের পুনর্গঠন ও উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে তাঁর অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে বিজিবিএম পদকে ভূষিত হন। বিজিবি মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে তিনি বিজিবির পুনর্গঠন ও উন্নয়নে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। এর স্বীকৃতি হিসেবে রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে পান পিজিবিএম পদক।

২০১৬ সাল থেকে বাংলাদেশ অ্যামেচার বক্সিং ফেডারেশনের সভাপতি হিসেবে নিয়োজিত আছেন আজিজ আহমেদ। পেশাগতভাবে ঈর্ষনীয় দক্ষতা ও অভিজ্ঞতার অধিকারী লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ সম্পূর্ণ নিজ উদ্যোগে ‘TRAINING NOTE ON FIRE PLAN’ এবং’OPERATION CARD FIELD ARTILLERY’ প্রকাশ করেন যা আর্টিলারি রেজিমেন্টের সকল পর্যায়ের জন্য অত্যন্ত মূল্যবান দুইটি প্রকাশনা হিসেবে সমাদৃত।

ব্যক্তিগত জীবনে লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ আহমেদ বিবাহিত ও তিন ছেলের জনক। তাঁর দ্বিতীয় সন্তান বর্তমানে বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে ৭৬তম দীর্ঘমেয়াদি কোর্সে প্রশিক্ষণরত রয়েছেন।