সদর উপজেলা নির্বাচন করানোর প্রত্যায় এমপি শামীম ওসমানের

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্কঃ   মামলা জটিলতার কারণে আটকে থাকা সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচন করাবেন বলে ঘোষণা দিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে এমপি শামীম ওসমান বলেছেন, আমরা নারায়ণগঞ্জে সদর উপজেলা নির্বাচন করাবো। আপনারা রাজি থাকলে একজনই ক্যান্ডিডেট দেবো। একজনেরই নাম ঘোষণা হবে।

আগামী ২ মার্চ (শনিবার) আয়োজিত জনসভার প্রস্তুতি হিসাবে মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ৩টায় মাসদাইরের বাংলা ভবন কমিউনিটি সেন্টারে ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের কর্মীদের নিয়ে এক আলোচনা করতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় তিনি বলেন, আমাদের ফতুল্লাতে সংগঠন আরো শক্তিশালী করতে হবে। আমার কাছে ভোটের কিছু হিসাব আছে। আমি নেতৃবৃন্দের সাথে বসবো, এটা আমি দেখাবো। আমি ভোটের পদ্ধতি নিয়ে খুশি না। অন্য এমপিরা খুশি হইতে পারে কিন্তু আমি খুশি না।

শামীম ওসমান বলেন, আমি জনগণের সাথে রাজনীতি করি। মাছ পানিতে থাকতে পছন্দ করে। মাছকে ডাঙায় উঠিয়ে রাখলে বাচবে না। রাজনীতিবিদরা যদি মাছ হয় তাহলে আমি পানি ছাড়া মাছ হতে চাই না। মানুষ শান্তি চায়। আমরা মানুষের দরজায় দরজায় যাবো। মানুষের মন জয় করাটাই হবে আমাদের কাজ।

সাংসদ শামীম ওসমান বলেন, বিএনপির শাহ্ আলম সাহেব পদত্যাগ করছে। বোঝেন রাজনীতির অবস্থা। ভালো লোকরা বিএনপি করবে না। ভালো লোকরা রাজনীতি ছেড়ে দিবে। ওই ভালো লোকগুলোরে আমরা নেবো।
নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমার চাওয়া পাওয়ার কিছু নাই। মানুষের জন্য কাজ করতে হবে।

ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম সাইফুল্লাহ বাদলের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মো. বাদল, ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম শওকত আলী, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ্ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেল আলী, কাশিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আইয়ূব আলী, সাবেক ছাত্রনেতা এহ্সানুল হক নিপু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানি প্রমুখ।