পুলিশের নজরে ‘অশ্লীল ভিডিও‘র ভাইদাইম্যা,রেশমী,টুনটুনি!

 বিনোদন(আজকের নারায়নগঞ্জ):  অভিনেত্রী সানাই এবং সালমান মুক্তাদিরের পর এবার ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি ও ক্রাইম বিভাগের নজর পড়েছে ইন্টারনেটে ভাইরাল অন্যান্য অশ্লীল ভিডিওগুলোর দিকে।

সম্প্রতি ডিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নাজমুল ইসলাম বলেন, এ ধরনের কেউ আর ছাড় পাবে না।

বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সংবাদমাধ্যমকে নাজমুল ইসলাম বলেন, মডেল ও অভিনেত্রী সানাই এবং ইউটিউবার সালমান মুক্তাদিরের পর তালিকায় আছেন রেশমি অ্যালান, ভাদাইমা, টুনটুনি আদ্রিতাসহ অনেকেই। রেশমি এ্যালান ফেসবুক লাইভ, বিগো লাইভ ও ইউটিউবে খুবই খোলামেলা ও অপেশাদার কথা বলেন। এছাড়া ভাদাইমার নামে ইউটিউবে অনেক অশ্লীল ভিডিও ও শর্টফিল্ম রয়েছে।

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি (আইসিটি) মন্ত্রী মোস্তফা জব্বারের নেতৃত্বে নিরাপদ ইন্টারনেট ক্যাম্পেইনে গত মঙ্গলবার সালমান মুক্তাদিরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সাইবার ক্রাইম ইউনিট। মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পেয়ে বুধবার ফেসবুক লাইভে এস সালমান তার অবস্থান পরিষ্কার করেন। সালমান তার ‘অভদ্র প্রেম’ মিউজিক ভিডিওর জন্য অনুতপ্ত হন। তবে ওই ঘটনার আগেই নিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকে ভিডিও মুছে ফেলেন।

ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি ও ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নাজমুল ইসলাম বলেন, সালমান সাইবার ক্রাইম ইউনিটে মুচলেকা দিয়েছেন যে তিনি কখনো আর এ ধরনের ভিডিও উৎপাদন এবং বাজারজাত করবেন না। সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগ সালমানের কর্মকাণ্ডের ওপর নজর রাখবে। সালমান তার মুচলেকার বাইরে কিছু করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এর আগে ১৭ ফেব্রুয়ারি একই অভিযোগে অভিনেত্রী সানাই মাহবুব সুপ্রভাকে আটক করে সাইবার ক্রাইম ইউনিট। তিনিও মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পেয়ে ফেসবুক লাইভে আসেন। ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চান।