৫-২ গোলে তিউনিসিয়াকে হারিয়ে শেষ ষোলোর পথে বেলজিয়াম

ক্রীড়া ডেস্ক : প্রথম ম্যাচে পানামার বিপক্ষে করেছিলেন দুই গোল। রোমেলু লুকাকু আজ তিউনিসিয়ার বিপক্ষেও করলেন জোড়া গোল। জোড়া গোল করলেন এডেন হ্যাজার্ডও। তাতে স্রেফ উড়ে গেল তিউনিসিয়া। টানা দ্বিতীয় জয়ে শেষ ষোলোর পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেল বেলজিয়াম।

মস্কোয় শনিবার ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচটি বেলজিয়াম জিতেছে ৫-২ গোলে। বিশ্বকাপে এই প্রথম কোনো ম্যাচে পাঁচ গোল করল বেলজিয়াম। প্রথম ম্যাচে তারা পানামাকে হারিয়েছিল ৩-০ গোলে।

ম্যাচের সাত গোলের তিনটিই হয়েছে প্রথম ১৮ মিনিটের মধ্যে! ষষ্ঠ মিনিটে হ্যাজার্ডের পেনাল্টি গোলে এগিয়ে যায় বেলজিয়াম। ১৬ মিনিটে ড্রিস মের্টেন্সের পাস থেকে গোল করে ব্যবধান বাড়ান লুকাকু।

যদিও বেলজিয়ামের দুই গোলের লিড টিকেছে মাত্র ১০৯ সেকেন্ড। ওহাবি খাজরির ক্রস থেকে জোরালো হেডে তিউনিসিয়ার হয়ে ব্যবধান কমান ডিলান ব্রোন। এর একটু পরই অবশ্য মারাত্মক হাঁটুর চোট নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে।

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে নিজের দ্বিতীয় গোলে আবার ব্যবধান বাড়ান লুকাকু। কেভিন ডি ব্রুইনের বাড়ানো বল থেকে গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে বল জালে পাঠান ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এই ফরোয়ার্ড।

১৯৮৬ সালে দিয়েগো ম্যারাডানার পর প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপে টানা দুই ম্যাচে দুটি বা এর বেশি গোল করলেন লুকাকু। ১৯৮৬ বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ডের সঙ্গে ও সেমিফাইনালে বেলজিয়ামের বিপক্ষে দুটি করে গোল করেছিলেন আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি ম্যারাডানা।

পর্তুগালের ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সমান ৪ গোল নিয়ে এবারের বিশ্বকাপে যৌথভাবে সর্বোচ্চ গোলদাতাও এখন লুকাকু। বিশ্বকাপ ও ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ মিলিয়ে লুকাকুর গোল হলো ৭টি, যা মেজর টুর্নামেন্টে বেলজিয়ামের কোনো খেলোয়াড়ের সর্বোচ্চ।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে (৫১ মিনিট) হ্যাজার্ডও পূর্ণ করেন জোড়া গোল। মাঝমাঠ থেকে ডি ব্রুইনের বাড়ানো বল ধরে এগিয়ে গিয়ে প্রথমে গোলরক্ষককে কাটান, এরপর দারুণ ফিনিশিং দেন চেলসি ফরোয়ার্ড। স্কোরলাইন হয়ে যায় ৪-১!

৫৯ মিনিটে লুকাকুর বদলি হিসেবে মাঠে নামেন মারুয়ান ফেলাইনি। আরেক বদলি খেলোয়াড় মিচি বাতশুয়াই ভালো তিন-তিনটি সুযোগ নষ্ট করেন।

অবশেষে ৯০ মিনিটে জালের দেখা পান বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের এই ফরোয়ার্ড। যোগ করা সময়ে খাজরির গোল তিউনিসিয়ার পরাজয়ের ব্যবধানই শুধু কমাতে পারে।

দুই ম্যাচে পূর্ণ ৬ পয়েন্ট নিয়ে ‘জি’ গ্রুপের শীর্ষে আছে বেলজিয়াম। ৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ইংল্যান্ড। তিউনিসিয়া ও পানামা কোনো পয়েন্ট পায়নি। পানামা একটি ম্যাচ খেললেও তিউনিসিয়া দুটি।