চাঁদা দিতে অস্বীকৃতিঃ ইট দিয়ে বৃদ্ধার মাথা থেঁতলে দিল সন্ত্রাসীরা

সংবাদদাতা,আড়াইহাজারঃ   চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানানোয় আড়াইহাজারে রাবেয়া বেগম (৭৫) নামে এক বৃদ্ধাকে ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করার অভিযোগ ওঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। উপজেলার দুপ্তারা এলাকায় শুক্রবার (২২ জুন) সকালে এ ঘটনাটি ঘটে।

এসময় বৃদ্ধার পুত্রবধূ বেবী আক্তারকেও শ্লিলতাহানী করাসহ তাঁর গায়ে থাকা স্বর্ণলঙ্কার লুট করে নেয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করা হয়েছে। আহত বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত বৃদ্ধার ছেলে রিয়াজুল ইসলাম খোকন জানান, তাদের বসতবাড়িতে মিথ্যা ওয়ারিশ দাবি করে দীর্ঘদিন ধরে প্রতিবেশি কাইয়ুম, বিপ্লব, উজ্জ্বল, ফরকান, দেলোয়ার ও আল-আমিনগংয়েরা দখলের চেষ্টা করে আসছিল। তাতে সুবিধা করতে না পেরে তাঁরা ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। তাঁদের দাবিকৃত টাকা না দেয়ায় তাঁরা নানাভাবে হয়রানি করতে থাকেন।

তিনি বলেন, শুক্রবার সবকালে আমাদের বসতবাড়ি ৫০ থেকে ৬০ জন লোকদেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা করে। এসময় আমার বৃদ্ধা মা রাবেয়া বেগমকে একা পেয়ে বেধরক মারপিট করে। আমার স্ত্রী বেবী আক্তার তাঁকে রক্ষা করতে এগিয়ে গেলে তাঁকেও সন্ত্রাসীরা পেটায়। তাঁদের ডাকচিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে গেলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় মা’কে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

রিয়াজুল আরও বলেন, এসময় স্ত্রী বেবীর গায়ে থাকা স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় আড়াইহাজার থানায় মামলা দিতে গেলে পুলিশ মামলা নিতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

এদিকে কাইয়ুমের সাথে যোগাযোগ করলে অভিযোগটি অস্বীকার করে তিনি জানান, কারোর কাছ থেকে চাঁদা বা কারোর বাড়ি ৫০ থেকে ৬০ জন লোক নিয়ে দখলের চেষ্টার কোন ঘটনাই ঘটেনি। এসব অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

আড়াইহাজার থানার ওসি এম এ হক বলেন, এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ দিতে আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।