লেখার কিছুই নেই

আইনুল মাজেদীন
—————————-
লেখার কিছুই নেই, কী লিখব?
যখন চারদিকে উদ্বাহু সন্ত্রাস জাল পেতে বসে আছে,
যেন মাৎস্যন্যায়, তখন কী আর লিখতে পারি, বলো?
অতএব লেখার কিছুই নেই-
শুধু হিজিবিজি শব্দ সাজিয়ে কী লাভ, বলো?

আজ এক অন্ধগর্ভ বন্ধ্যাসময়ে অধিবাস আমাদের,
গুমখুন, হত্যাযজ্ঞ, ধর্ষণ আর
ছলনা ও শাঠ্যের এই জনপদ
কতটা-বা দিতে পারে অভয় তোমাকে?
কোনোখানে এতটুকু বরাভয় নেই,
ইঁদুর,আরশোলা আর ধর্মব্যবসায়ীদের উৎপাতে
এই দেশ আজ দিশেহারা।

নিত্যকার ভোজ্যপণ্যের দাম
শনৈঃ শনৈঃ বাড়ছে কেবল,
শিশুখাদ্যসহ অন্যসব ভোজ্যপণ্য আজ
ভেজালে-ভেজালে সয়লাব।

আমি তাই লিখি না কিছুই আজ-
মগজের চোর-কুঠুরিতে বাসা বাঁধছে ঘূণপোকা,
শতাব্দীর সর্বনাশা ক্লেদ এসে
সমাজ-সংস্কৃতি-শিল্প, কর্ম ও কলায়
অনাসৃষ্টির তাণ্ডব ছড়াচ্ছে চৌদিকে।

বুদ্ধিজীবী নামধারী আর
গরিবের রক্তশোষা কুসীদজীবীরা
এখন সমাজ ও রাষ্ট্রের হর্তাকর্তা সেজে বসে আছে,
সময় গড়িয়ে যায়, হায় সময় গড়িয়ে যায়
হয় না কিছুই-
নিজবাসভূমে পরবাসী হয়ে আছি।