মৃত শ্রমিকদের ৮ কোটি ৫৮ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর করলেন সেলিম ওসমান

৪২৯ জন নীট শিল্প শ্রমিকের মৃত্যুজনিত বীমা দাবীর ৮ কোটি ৫৮ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর করা হয়েছে। শনিবার (১২ মে) সকাল ১১টায় ঢাকায় বাংলাদেশ কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট (কেআইবি) কনভেশন হলে শ্রমিকদের স্বজনদের হাতে এই চেক হস্তান্তর করা হয়।

নীট গার্মেন্টস ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বিকেএমইএ-এর পক্ষ থেকে সংগঠনটির সভাপতি সাংসদ সেলিম ওসমান এই চেক তুলে দেন।

প্রত্যেক মৃত শ্রমিকের জন্য ২ লাখ টাকার চেক দেয়ার পাশাপাশি তাদের পরিবারের উপার্জনক্ষম বেকারদের চাকরি প্রাপ্তিতে বিকেএমইএ পাশে থাকার ঘোষণা দেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একে এম সেলিম ওসমান।

তাছাড়াও কোন পরিবারে উপার্জনক্ষম কেউ না থাকলে বিকেএমইএ’র কাছে আবেদন করলে সংগঠনটির পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয়ের সচিব আফরোজা খান ও বিকেএমইএ এর প্রথম সহ-সভাপতি মনসুর আহমেদ।

তাছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে বিকেএমইএ সহ-সভাপতি এহসান ফজলে শামীম, সহ-সভাপতি(অর্থ) হুমায়ন কবির খান শিল্পী, পরিচালক মোহাম্মদ আলামিন, মোস্তফা জামাল পাশা, শহীদ উদ্দিন আহাম্মেদ আজাদ, মোর্শেদ সারোয়ার সোহেল ও শাহাদাৎ হোসেন সাজনুসহ অন্যান্য পরিচালকবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মজিবুল হক চুন্নু বলেন, বর্তমানে রপ্তানিমুখী যত গার্মেন্টস রয়েছে সেগুলো থেকে এলসির মোট পরিমানের ০ দশমিক ০৩ শতাংশ টাকা সরকারের কাছে শ্রম ও কর্মসংস্থান দপ্তরে জমা হয়। সেই টাকার পরিমান বর্তমানে ৯৬ কোটি টাকায় দাড়িয়েছে। দিনে দিনে সেটি আরো বৃদ্ধি পাবে।

ওই তহবিল থেকেই আজকে শ্রমিকদের মৃত্যুদাবী চেক প্রদান করা হচ্ছে। আমার জীবনে আমি মন্ত্রী হয়ে যে কাজ গুলো করতে পেরেছি এর মধ্যে শ্রমিকদের জন্য এই তহবিলটি গঠন করা আমার জীবনে সব থেকে ভাল কাজ করতে পেরেছি বলে আমি মনে করি।